kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

বানিয়াচংয়ে স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ‘ধর্ষণ’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বানিয়াচংয়ে স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ‘ধর্ষণ’

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় ষষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। রাজবাড়ীতে এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে গৃহশিক্ষকের বিরুদ্ধে। গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর আপত্তিকর ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। কিশোরগঞ্জের ভৈরবে মাদরাসাছাত্রী ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি এবং পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় মাদরাসাছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় চার যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

হবিগঞ্জ ও বানিয়াচং : বানিয়াচংয়ে রবিবারের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত কিশোরের বাড়ি উপজেলা সদরের যাত্রাপাশা মহল্লায়। এ ঘটনায় সে ও তার তিন সহযোগী পলাতক।

নির্যাতিত মেয়েটির স্বজনরা জানায়, কিশোরটি প্রায়ই ওই ছাত্রীকে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে উত্ত্যক্ত করত। রবিবার সন্ধ্যার পর ছাত্রীটি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে গেলে ওত পেতে থাকা কিশোর ও তার তিন সহযোগী জোর করে ছাত্রীকে হাত-পা বেঁধে একটি বিদ্যালয়ের মাঠে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ছাত্রী বাড়িতে এসে বিষয়টি পরিবারকে জানায়। স্বজনরা তাকে বানিয়াচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিত্সক সেখান থেকে তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠান। সেখানে সে চিকিত্সাধীন। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বানিয়াচং থানার ওসি রঞ্জন কুমার সামন্ত জানান, এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে অভিযুক্তদের আটকে অভিযান চলছে।

রাজবাড়ী : ছাত্রীকে (১০) ধর্ষণের অভিযোগে তার মা গতকাল সোমবার রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা করেছেন। র্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যাম্পের সদস্যরা আসামি মো. আনোয়ার ব্যাপারীকে (১৮) গ্রেপ্তার করে রাজবাড়ী থানায় সোপর্দ করেছে। আনোয়ার রাজবাড়ী সদর উপজেলার আলীপুর ইউনিয়নের বারবাকপুর গ্রামের মো. লতিফ ব্যাপারীর ছেলে।

র্যাব-৮ ফরিদপুরের কম্পানি অধিনায়ক উপপরিচালক মেজর আব্দুল্লাহ আল মঈন হাসান জানান, গত রবিবার এক ব্যক্তি র্যাব ক্যাম্পে এসে অভিযোগ করেন। অভিযোগে বলা হয়, গত ২১ নভেম্বর রাত ৯টার দিকে আনোয়ার ব্যাপারী ওই ছাত্রীকে প্রাইভেট পড়ানোর সময় একা পেয়ে গলা টিপে হত্যার ভয় দেখিয়ে তাদের বসতঘরে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে অভিযুক্তের মা ও অন্যরা এর উপযুক্ত বিচারের আশ্বাস দেন। ২৮ নভেম্বর সন্ধ্যায় এ নিয়ে স্থানীয় লোকজন সালিস বৈঠক করে অভিযুক্তকে সামান্য তিরস্কার ও গালমন্দ করে বিষয়টির সমাধান হয়েছে বলে জানিয়ে দেয়। মেয়েটির পরিবার এ সালিস মেনে না নিলে অভিযুক্ত ও তাঁর পরিবার বিভিন্ন লোকজন নিয়ে ছাত্রীর পরিবারকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখায়।

গোপালগঞ্জ : গতকাল সকালে গ্রেপ্তারকৃত রাজু আহমেদ (২৫) কাশিয়ানী উপজেলার পারুলিয়া গ্রামের আব্দুল হামিদ মৃধার ছেলে। এ ঘটনায় নির্যাতিত ছাত্রীর বাবা গত রবিবার রাতে কাশিয়ানী থানায় ধর্ষণ ও সাইবার অপরাধ আইনে মামলা করেছেন।

কাশিয়ানী থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান জানান, রাজু ওই ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন। একপর্যায়ে তিনি ছাত্রীটিকে ফাঁদে ফেলে ধর্ষণ করেন। তিনি মোবাইল ফোনে আপত্তিকর ছবিও তুলে রাখেন। সম্প্রতি তিনি এসব ছবি ইন্টারনেটে ছাড়েন। গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা হয়েছে।

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) : গত ৬ জুনের ঘটনায় রবিবার রাতে পুলিশ ভৈরব রেলওয়ে স্টেশন এলাকা থেকে আসামি ইমন মিয়াকে (২২) গ্রেপ্তার করে। তিনি ভৈরব শহরের পঞ্চবটি বউবাজার এলাকার গোলাপ মিয়ার ছেলে। গতকাল তাঁকে কিশোরগঞ্জ জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে এ মামলার আরেক আসামি আশিক (২০) গ্রেপ্তার হন। মামলার প্রধান আসামিসহ দুজনকে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

ইমনের মা পারুল বেগমের দাবি, তাঁর ছেলে ও এক ভাইকে ষড়যন্ত্র করে মামলায় আসামি করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমান জানান, মেয়েটিকে একাধিক ব্যক্তি ধর্ষণ করে বলে মেডিক্যাল রিপোর্টে আলামত পাওয়া গেছে। ঘটনায় ইমন জড়িত বলেও তদন্তে প্রমাণ পাওয়া গেছে।

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) : নীলগঞ্জ ইউনিয়নে গত রবিবারের ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন মো. সরোয়ার হোসেন (২০), মো. নোমান (২০), মো. হাসান গাজী (২১) ও নাজমুল গাজী (২০)। তাঁদের বাড়ি কলাপাড়ার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের কুমিরমারা গ্রামে। এ ঘটনায় নির্যাতিত ছাত্রীর বাবা আটজনের বিরুদ্ধে কলাপাড়া থানায় একটি মামলা করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কলাপাড়া থানার এসআই আলমগীর জানান, অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা