kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

ছেলের চাকরি ফেরত দেওয়ার দাবি

রংপুরে অনশনে এক মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁর পরিবার

রংপুর অফিস   

২০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রংপুরে অনশনে এক মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁর পরিবার

বাংলাদেশ ব্যাংকে ছেলের চাকরি পুনর্বহালের দাবিতে রংপুরে আমরণ অনশন শুরু করেছে এক মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁর পরিবার। ছেলেকে চাকরি ফেরত না দেওয়া হলে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফনসহ বেঁচে থাকাকালীন সব রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা রঙ্গলাল মহন্ত। গতকাল মঙ্গলবার সকালে রংপুর নগরীর বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে এ কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধা রঙ্গলাল মহন্তের ভাষ্য, তাঁর ছেলে মুদ্রা নোট পরীক্ষক সাধন চন্দ্র মহন্তের বিরুদ্ধে হিসাবের গরমিলের মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে। সুষ্ঠু তদন্ত না করেই তাঁকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, ‘যে কারণে আমার ছেলেকে চোর সাব্যস্ত করা হয়েছে, সেই একই অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও পুনর্মুদ্রা নোট পরীক্ষককে লঘু শাস্তি দিয়ে চাকরিতে বহাল রাখা হয়েছে। অথচ সাধন চন্দ্র মহন্তকে ষড়যন্ত্রের জালে ফেলে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠিয়ে কৌশলে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে, যা অন্যায় ও অবিচার।’

চাকরিচ্যুত সাধন চন্দ্র মহন্তের দাবি, সিসিটিভির ফুটেজ দেখে পুনঃ তদন্ত করলে তিনি নির্দোষ প্রমাণিত হবেন। তিনি বলেন, ‘আমি ২০১২ সালের ১৫ জানুয়ারি থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকে সততার সঙ্গে চাকরি করে আসছি। ব্যাংকের রংপুর শাখায় থাকাকালে এ বছরের মে মাসে বান্ডিল করা প্যাকেট থেকে দুই দফায় মোট এক হাজার ৫০ টাকা কম পাওয়ার যে অভিযোগ আমার বিরুদ্ধে তোলা হয়েছে, এটা পরিকল্পিত। আমি ষড়যন্ত্রের শিকার।’

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের রংপুর উপব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলার রহমান কথা বলতে রাজি হননি। তবে বাংলাদেশ ব্যাংক রংপুর শাখার তৎকালীন নির্বাহী পরিচালক গোলাম হায়দার বলেন, ‘আমি দায়িত্বে থাকাকালীন তাঁর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এসেছিল, তা তদন্ত করে প্রচলিত বিধি অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন আমি রংপুর থেকে বদলি হয়েছি। এ কারণে এ বিষয়ে কথা বলতে পারব না।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা