kalerkantho

বুধবার । ২৯ জানুয়ারি ২০২০। ১৫ মাঘ ১৪২৬। ৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

শ্রীলঙ্কার নতুন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে

আজ শপথ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে




শ্রীলঙ্কার নতুন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে

ছবি: ইন্টারনেট

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয় পেয়েছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপক্ষের ভাই গোতাবায়া রাজাপক্ষে। নির্বাচনী প্রচারাভিযানে জাতীয়তাবাদী ইস্যুকে কাজে লাগিয়ে এ জয় পেলেন বিরোদী দল এসএলপিপির এই কট্টরপন্থী প্রার্থী। গত এপ্রিলে ইস্টার সানডেতে জঙ্গি হামলার কারণে এবারের নির্বাচনে নিরাপত্তা ইস্যু প্রধান হয়ে ওঠায় সংখ্যাগরিষ্ঠ বৌদ্ধ সিংহলিরা গৃহযুদ্ধকালীন প্রতিরক্ষামন্ত্রী গোতাবায়ার প্রতি আস্থা জ্ঞাপন করল। নির্বাচনের ফল মেনে নিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী সজিত প্রেমাদাসা।

গত শনিবার শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোগ গ্রহণ করা হয়। গতকাল রবিবার বিকেলে নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যান মাহিন্দা দেশপ্রিয় ভোটের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করে বিরোধী জোটের শরিক দল শ্রীলঙ্কা পদুজানা পেরামুনা (এসএলপিপি) দলের প্রার্থী গোতাবায়া রাজাপক্ষেকে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন। আজ সোমবার তিনি প্রেসিডেন্ট পদে শপথ নেবেন বলে জনিয়েছে শ্রীলঙ্কার ইংরেজি দৈনিক ডেইলি নিউজ।

নির্বাচনে ৭০ বছর বয়সী অবসরপ্রাপ্ত লে. কর্নেল গোতাবায়া ৫২.২৫ শতাংশ ভোট পেয়েছেন, যার পারিবারিক ডাকনাম ‘টারমিনেটর’। তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৬৯ লাখ ২৪ হাজার ২৫০টি। তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ক্ষমতাসীন দল ইউনাইটেড ন্যাশনালিস্ট পাটির (ইউএনপি) প্রার্থী সজিত প্রেমাদাসা পেয়েছেন ৪১.৯৯ শতাংশ ভোট এবং তাঁর প্রাপ্ত ভোট ৫৫ লাখ ৬৪ হাজার ২৩৯টি। নির্বাচনে তৃতীয় স্থান পাওয়া প্রার্থী অনুরা কুমার দিশানায়েকে পেয়েছেন মাত্র ৩.১৬ শতাংশ ভোট। নির্বাচনে মোট ৮৩.৭ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে। নির্বাচনে ৩৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

গত এপ্রিলে ইস্টার সানডে হামলার ঘটনায় ২৬৯ জন মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। এর সাত মাসের মাথায় অনুষ্ঠিত হওয়া প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারাভিযানে নিরাপত্তা ইস্যু প্রধান হয়ে ওঠে। এসএলপিপির প্রার্থী গোতাবায়া রাজাপক্ষে জাতীয়তাবাদী প্রচারাভিযানে বেশি মনোযোগ দেন এবং নিরাপত্তার প্রতিশ্রুতি ও বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটিতে ধর্মীয় সন্ত্রাসবাদ দমনের অঙ্গীকার করেন। বিপরীতে সজিত প্রেমাদাসা প্রচারাভিযানে আরো উন্নত নিরাপত্তাব্যবস্থা এবং সাবেক যুদ্ধকালীন জেনারেল সারাথ ফনসেকাকে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা করার অঙ্গীকার করেছিলেন।

বার্তা সংস্থা এএফপির মতে, গোতাবায়ার এই বিজয়ধ্বনি শ্রীলঙ্কার তামিল ও মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠদের জন্য সতর্কবার্তাও। এ ছাড়া তাঁর এই জয় দেশটির মানবাধিকারকর্মী ও সাংবাদিক এবং ২০০৫ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত শাসনামল নিয়ে যে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় নানা অভিযোগ করেছে, তাদের জন্যও সতর্কতা সংকেত। ওই মেয়াদে প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপক্ষে ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী গোতাবায়া রাজাপক্ষে তামিল বিচ্ছিন্নতাবাদীদের বিরুদ্ধে কঠোর দমন অভিযান চালান এবং গৃহযুদ্ধের অবসান ঘটান।

পরাজয় স্বীকার প্রেমাদাসার, ঐক্যের আহ্বান গোতাবায়ার : গতকাল ভোটের চূড়ান্ত ফল ঘোষণার আগেই পরাজয় স্বীকার করে নেন ইউএনপির প্রার্থী সজিত প্রেমাদাসা। একই সঙ্গে ভোটের ফলে এগিয়ে থাকা গোতাবায়া রাজাপক্ষেকেও অভিনন্দন জানান। দুপুরের দিকে জনসমক্ষে পরাজয় মেনে নিয়ে গোতাবায়া বলেন, ‘জনগণের সিদ্ধান্তকে সম্মান করা আমার অগ্রাধিকার। আমি মি. গোতাবায়া রাজাপক্ষেকে তাঁর নির্বাচনের (ফলের) জন্য এবং সপ্তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে অভিনন্দন জানাচ্ছি।’

অন্যদিকে টুইটারে দেওয়া এক বিবৃতিতে নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘সব শ্রীলঙ্কানই এই (জয়) যাত্রার অংশীদার।’ সূত্র : এএফপি, বিবিসি, ডেইলি নিউজ ও ডেইলি মিরর (শ্রীলঙ্কা)।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা