kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

তিনজনকে ধর্ষণের অভিযোগ সৎবাবাসহ গ্রেপ্তার ২

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তিনজনকে ধর্ষণের অভিযোগ সৎবাবাসহ গ্রেপ্তার ২

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে এক প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে দেড় বছর বয়সী শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে সৎবাবার বিরুদ্ধে। নারায়ণগঞ্জে বন্দরে বিয়ে করার কথা বলে ডেকে নিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। হাটহাজারী ও বন্দরের ঘটনায় অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

রাজবাড়ী : গত শুক্রবার বালিয়াকান্দি থানায় নির্যাতিত নারীর ভাইয়ের করা মামলায় আসামির নাম আলমগীর শেখ (৩৫)। তিনি উপজেলার হুলাইল গ্রামের মৃত সোনা মিয়া ওরফে রশিদ মাস্টারের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ওই নারীকে ৬ মাস ধরে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন আলমগীর। গত ২৫ অক্টোবর রাতে আলমগীর তাঁর (নারী) ঘরে ঢুকে তাঁকে ধর্ষণ করেন। তাঁর চিৎকারে বাড়ির লোকজন ও প্রতিবেশীরা গিয়ে আলমগীরকে আটক করে। পরে স্থানীয় লোকজন মীমাংসার কথা বলে আলমগীরকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়। তবে আর মীমাংসা করেনি। এরই মাঝে ওই নারী অসুস্থ হয়ে পড়েন। চিকিৎসক জানিয়েছেন, তিনি অন্তঃসত্ত্বা।

বালিয়াকান্দি থানার ওসি একেএম আজমল হুদা বলেন, আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। ওই নারীর রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষা এবং জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে।

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) : হাটহাজারীতে বৃহস্পতিবার রাতে নির্যাতিত শিশুকে গুরুতর অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির মা হাটহাজারী মডেল থানায় মামলা করলে পুলিশ অভিযুক্ত মো. ফারম্নককে (৩৫) গ্রেপ্তার করে শুক্রবার আদালতে পাঠায়। ফারম্নক খাগড়াছড়ির মহালছড়ি উপজেলার নতুনপাড়ার আবদুর রশিদের ছেলে ও দিনমজুর।

শিশুটির মা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে তিনি ভাড়াবাসার অদূরে একটি বাসায় কাজ করতে গেলে ফারম্নক শিশুটিকে নির্যাতন করেন। শিশুটির চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার ও ফারম্নককে আটক করে থানায় সংবাদ দেয়।

হাটহাজারী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আফজাল হোসেন বলেন, অভিযুক্তকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ : বন্দরে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার উজ্জ্বল বন্দর রাজবাড়ি এলাকার ফারম্নক মিয়ার ছেলে। শুক্রবার গভীর রাতে উজ্জ্বলকে তাঁর বন্দর

পুলিশ ফাঁড়িসংলগ্ন বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর আগে নির্যাতিত তরুণী বন্দর থানায় মামলা করেন।

বন্দর ফাঁড়ির পরিদর্শক মোসৎমাফিজুর রহমান বলেন, ২ মাস আগে ওই তরুণী শরীর চর্চার জন্য বন্দর র্গালস স্কুলসংলগ্ন দাওয়ান জিমে ভর্তি হন। এ সূত্রে তাঁর সঙ্গে জিম মালিকের ছেলে উজ্জ্বলের পরিচয় ও প্রেম হয়। উজ্জ্বল বিয়ের কথা বলে গত বুধবার সকালে ফোন করে তরম্নণীকে তাঁদের বাড়িতে ডেকে আনেন। দুপুরে তিনি তরুণীকে ধর্ষণ করেন। তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা