kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

নৈরাজ্য থামাতে পেঁয়াজ বাজারে হানা

বেশি দাম রাখায় ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



নৈরাজ্য থামাতে পেঁয়াজ বাজারে হানা

বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি ও দোকানে মূল্য তালিকা না রাখায় রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এসব অভিযানে সংস্থার ভ্রাম্যমাণ আদালত পেঁয়াজের মূল্য কারসাজিতে জড়িত ব্যবসায়ী ও বিক্রেতাদের জরিমানা করেছেন। একই সঙ্গে অন্য দোকানদারদেরও সতর্ক করা হয়েছে। রাজধানীতে অভিযান পরিচালনা করেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আবদুল জব্বার।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক রাজধানীর শ্যামবাজারে পেঁয়াজের মূল্য তালিকা না টানিয়ে মূল্যবৃদ্ধির কারসাজি করার অপরাধে মেসার্স বদিউজ্জামান অ্যান্ড সন্সকে ২০ হাজার টাকা, বিসমিল্লাহ ট্রেডার্সকে ২০ হাজার টাকা, রিতা মুক্তা বাণিজ্যালয়কে ৩০ হাজার টাকা, আজমির ভাণ্ডারকে ২০ হাজার টাকা, নিউ ভাই ভাই বাণিজ্যালয়কে ২০ হাজার টাকাসহ পাঁচ প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। 

এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জ শহরের দিগুবাবু বাজারে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আসমা সুলতানা নাসরিন ও ফারজানা আক্তারের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক শাহজাহান হাওলাদার উপস্থিত ছিলেন।

আসমা সুলতানা জানান, বাজার মনিটরিংয়ের জন্য জেলা প্রশাসকের নির্দেশে দিগুবাবু বাজারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় একটি মুদি দোকানদার ও দুজন খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতা ২৩০ থেকে ২৫০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করছিলেন। এতে ভোক্তাদের সঙ্গে প্রতারণা করা হচ্ছে। আর দোকানে মূল্য তালিকা টাঙানো না থাকায় এমনটা করতে পারছেন বিক্রেতারা। তাই তিন পেঁয়াজ বিক্রেতাকে ১২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

খুলনা অফিস জানায়, খুলনায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রির অভিযোগে মো. হযরত আলী নামের এক ব্যবসায়ীকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন। গতকাল শনিবার দুপুরে নগরীর বড় বাজারে খুলনা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান এ অভিযান চালান।

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি জানান, অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রির অভিযোগে চুয়াডাঙ্গার কাঁচাবাজারে (নিচের বাজার) অভিযান চালিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় দুটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। গতকাল দুপুরে শহরের নিচের বাজারের কাঁচামালের খুচরা ও পাইকারি বাজারে এ অভিযান চালানো হয়।

দেবীদ্বার (কুমিল্লা) প্রতিনিধি জানান, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর অভিযান চালিয়ে পাঁচ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানকে মোট ২২ হাজার টাকা জরিমানা করে। মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা, পেঁয়াজের অতিরিক্ত মূল্য নেওয়া, মেয়াদ উত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রয় ও মজুদ রাখা, ওজনে কারচুপিসহ নানা অভিযোগে এ জরিমানা করা হয়। গতকাল সকাল ১১টায়  কুমিল্লা জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আছাদুল ইসলামের নেতৃত্বে দেবীদ্বার সদরের নিউ মার্কেটে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, গতকাল দুপুরে চুনারুঘাট উপজেলার আসামপাড়া সীমান্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলার ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) নুসরাত ফাতিমা। এ সময় তাঁরা দুটি পেঁয়াজের গুদামে বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ মজুদ দেখতে পান। আসামপাড়া বাজারের স্বপনের গুদামে তাঁরা ২১ বস্তা পেঁয়াজ থাকলে তার ক্রয় রসিদ দেখাতে বলেন। তাঁরা কোনো ক্রয় রসিদ দেখাতে পারেননি। অভিযানে স্বপনকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি জানান, লক্ষ্মীপুরে একটি মুদি দোকানের গুদামে গতকাল রাতে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ৪০ বস্তা পেঁয়াজ জব্দ করেছেন। নিয়মবহির্ভূতভাবে পেঁয়াজ মজুদ রাখায় এ সময় গোডাউনটি সিলগালা করে দেওয়া হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল। রাত ৮টার দিকে জেলা শহরের গেঞ্জিহাটা এলাকার মুদি ব্যবসায়ী মাইন উদ্দিনের দোকানে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। একই সময় পেঁয়াজের দাম বেশি রাখার দায়ে মুদি ব্যবসায়ী কার্তিক চন্দ  সাহাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা