kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

আইসিসিবিতে গার্মেন্টশিল্পের তিন আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আইসিসিবিতে গার্মেন্টশিল্পের তিন আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী

ঘড়ি কাঁটা বিকেল ৪টা ১০ মিনিটের ঘরে। রোদের তেজ কিছুটা কমতে শুরু করেছে। রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার (আইসিসিবি) প্রবেশপথে দাঁড়িয়ে আবদুর রহমান। দৃষ্টি নিবদ্ধ সামনের ভিড়ে। কৌতূহলী দৃষ্টিতে বারবার তাকাছেন এদিক ওদিক। ভিড় ঠেলে অঙ্গনে প্রবেশ করতেই কৌতূহলের জায়গায় ভর করে অবাক বিস্ময়।

কালের কণ্ঠ’র প্রশ্নমাখা দৃষ্টির উত্তরে বললেন, ‘ভীষণ ভালো লাগছে। চারদিকে সব আধুনিক যন্ত্রপাতি। এমন জমজমাট প্রদর্শনী আর অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি দেখলে মনটা এমনিতেই ভালো হয়ে যায়। দেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে এসব প্রদর্শনী তার বড় সাক্ষ্য বহন করে।’

গার্মেন্ট খাতের মেশিনারি, এক্সেসরিজ ও টেকনোলজি নিয়ে আইসিসিবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী ‘জিটি ম্যাট’। চতুর্থবারের মতো আয়োজিত এই প্রদর্শনী সরেজমিনে ঘুরে দেখতে দেখতে ভেতরে ঢুকতেই চোখে পড়ল কর্মব্যস্ততা। উদ্বোধনী দিনেই প্রদর্শনীতে উল্লেখযোগ্যসংখ্যক ক্রেতা-দর্শনার্থীর আগমন ঘটেছে। প্রতিটি স্টলেই বিক্রেতারা ব্যস্ত ক্রেতাদের সামলাতে।

প্রদর্শনীর সহগামী আয়োজন হিসেবে একযোগে শুরু হয়েছে ইয়ার্ন ফ্যাব সোর্সিং এক্সপো ও অফিস আইডিয়া এক্সপো। গার্মেন্ট খাতের মেশিনারি, এক্সেসরিজ ও টেকনোলজি নিয়ে মেলায় চীন, ভারতসহ ৯টি দেশ অংশ নিচ্ছে। এখানে গার্মেন্টস ওয়াশিং ইন্ডাস্ট্রির জন্য অত্যাধুনিক সব যন্ত্রপাতি রয়েছে।

গতকাল প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন। এ সময় বাংলাদেশ গার্মেন্ট এক্সেসরিজ অ্যান্ড প্যাকেজিং ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিজিএপিএমইএ) সভাপতি আব্দুল কাদের খান, প্রদর্শনীর আয়োজক সংস্থা কাইটস ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশনস প্রাইভেট লিমিটেডের চেয়ারম্যান রোকসানা বেগমসহ গার্মেন্ট শিল্পের সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন খাতের ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রদর্শনীতে পোশাক খাতসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন আধুনিক মেশিনারি, প্রযুক্তি ও এক্সেসরিজ নিয়ে হাজির হয়েছে বাংলাদেশ, ভারত, চীন, শ্রীলংকা, তুরস্ক ও ইন্দোনেশিয়ার ৭০টি প্রতিষ্ঠান। মেলার ১২০টি স্টলে সাজিয়ে রাখা হয়েছে গার্মেন্ট খাতের বয়লার, ইটিপি, আধুনিক সেলাই মেশিন, সুতা, বোতাম, অগ্নিনির্বাপণ ও প্রতিরোধক প্রযুক্তি, নিরাপত্তা সরঞ্জাম, থ্রেড সাকিং মেশিন ইত্যাদি।

অনেকের মতো মেলায় স্টল দিয়েছে রয়্যাল মেশিনারি করপোরেশন লিমিটেড। ব্যস্ততার মধ্যেও প্রতিষ্ঠানটির ম্যানেজিং ডিরেক্টর আলাপচারিতায় কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা মূলত পরিচিতির জন্য এখানে এসেছি। মানুষকে আমাদের পণ্যের মান দেখাতে চাই। মেলায় ভালো অর্ডার পাওয়ারও প্রত্যাশা করছি।’

সানসাইন করপোরেশন লিমিটেড মেলায় নিয়ে এসেছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সুগন্ধিসহ নানা উপকরণ। এই স্টলের এক বিক্রয়কর্মী জানালেন, মেলা উপলক্ষে বিভিন্ন পণ্য অনেক কম মূল্যে বিক্রি করা হচ্ছে। বিক্রিও হচ্ছে ভালো।

এর আগে প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হুইপ আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন বলেন, ‘আমরা বিনিয়োগবান্ধব নীতিমালা প্রস্তুত করেছি। প্রধানমন্ত্রী দেশকে এগিয়ে নিতে কর্মসংস্থান ও বিনিয়োগে যতটা সমর্থন প্রয়োজন দিয়ে যাচ্ছেন। আমাদেরকে এখনো টেক্সটাইল ও এক্সেসরিজ বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়। সেই জায়গাটা পূরণ করতে হবে। গার্মেন্ট খাতকে স্বয়ংসম্পূর্ণ করতে হবে। কেননা আমরা রপ্তানিতে যা আয় করি, তার বড় অংশ আমদানিতে ব্যয় করতে হচ্ছে। কিভাবে আমদানি কমানো যায় সেই পরিকল্পনা দিন। সরকার সব ধরনের সহযোগিতা দেবে।’

প্রদর্শনী প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা