kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

স্কুলছাত্রীসহ দুজনকে ধর্ষণ

আরেক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্কুলছাত্রীসহ দুজনকে ধর্ষণ

সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার এক স্কুলছাত্রী তার ‘প্রেমিকের’ বিরুদ্ধে আদালতে ধর্ষণের মামলা করেছে। বগুড়ার শেরপুরে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। একই জেলার ধুনট উপজেলায় শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

চৌহালীতে গত ২৯ অক্টোবরের ঘটনায় সোমবার সিরাজগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১-এ মামলাটি করা হয়। আসামি রাকিবুল ইসলাম রাকিব (১৯) চৌহালী উপজেলার বাঘুটিয়া ইউনিয়নের রেহাই পুখুরিয়া গ্রামের শামছুল মিয়ার ছেলে। মামলার বাদী নবম শ্রেণির স্কুলছাত্রী জানায়, বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার পথে তাকে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন রাকিব। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক হয়। রাকিবের মা তাকে (ছাত্রী) দেখবে বলে ২৯ অক্টোবর দুপুরে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান রাকিব। সেখানে রাকিব তাকে ধর্ষণ করেন। ছাত্রীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন গিয়ে তাকে উদ্ধার ও রাকিবকে আটক করে। এরপর এলাকার প্রভাবশালীরা রাকিবকে নিয়ে যান। তাঁরা পরে গ্রাম্য সালিসে তাঁদের দুজনের বিয়ে দেওয়ার কথা বললেও তা আর হয়নি।

চৌহালী থানার ওসি রাশেদুল ইসলাম বিশ্বাস বলেন, ‘আদালতে করা মামলার কার্যাদেশ এখনো পাইনি। মামলা এলে তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বগুড়ার শেরপুরে মঙ্গলবার রাতে গ্রেপ্তার শামিম হোসেন (২৫) উপজেলার ক্ষিকিন্দা গ্রামের আব্দুস ছালামের ছেলে। এ ঘটনায় নির্যাতিত নারী মামলা করেছেন। মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই নারীর সঙ্গে দীর্ঘদিন আগে আত্মীয়তার সম্পর্ক গড়েন শামিম। তাঁর বাড়িতে শামিমের যাতায়াত রয়েছে। মঙ্গলবার রাতে শামিম বাড়িটিতে বেড়াতে গিয়ে ওই নারীকে ধর্ষণ করেন। শেরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বুলবুল ইসলাম জানান, আসামিকে গতকাল আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে ধুনটে মঙ্গলবার বিকেলে শিশুকে (৪) ধর্ষণচেষ্টায় অভিযুক্তের নাম আব্দুর রাজ্জাক (৫০)। কৃষক রাজ্জাক উপজেলার গোপালনগর ইউনিয়নের মোহাম্মাদপুর গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে। পুলিশ ও উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক গাজী সালাউদ্দিন জানান, নির্যাতিত শিশুকে মঙ্গলবার রাতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

ধুনট থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, শিশুটি এখন আশঙ্কামুক্ত। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। পলাতক রাজ্জাককে আটকে অভিযান চলছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা