kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রাজশাহী আ. লীগ নেতা বেন্টুর ছায়ায় সন্ত্রাসীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২২ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রাজশাহী আ. লীগ নেতা বেন্টুর ছায়ায় সন্ত্রাসীরা

আধিপত্য বজায় রাখতে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল আলম বেন্টুর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসীদের পোষার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিজ প্রয়োজন হাসিলের জন্য এসব সন্ত্রাসীকে তিনি পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছেন বলে জানা গেছে। ফলে নগরজুড়ে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে রেখেছে এই সন্ত্রাসীরা। সম্প্রতি পুলিশের হাতে এই নেতার দুই ঘনিষ্ঠ কর্মী আটক হওয়ার পর বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। বর্তমানে রাজশাহীর রাজনীতিতে বিষয়টি বেশ আলোচিত।

তবে আওয়ামী লীগ নেতা বেন্টু বলেন, ‘আমি রাজনীতি করি, আমার কোন কর্মী কোথায় থাকে তা নিশ্চিত করে তো বলা যায় না। খায়রুজ্জামান লিটনের মিছিল-মিটিংয়েও তো অনেক আসামি থাকে, ছিনতাইকারী, মাতাল থাকে। এ জন্য তো আপনি খায়রুজ্জামান লিটনকে দায়ী করতে পারেন না।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দলীয় কার্যক্রম পরিচালনার জন্য বেন্টু যেসব অনুসারীকে পাশে রেখেছেন, তাদের অনেকের নামে হত্যা মামলা পর্যন্ত রয়েছে। কেউ আবার বিভিন্ন মামলা থেকে জামিন নিয়ে বাইরে আছে। এ ছাড়া বিভিন্ন সময়ে চুরি-ছিনতাইকারীদেরও তিনি অনুসারী হিসেবে দলে জায়গা দিয়েছেন।

রাজশাহী মহানগরীর কাশিয়াডাঙা ফেরতাপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী শাহাবুল ইসলাম (৩২) হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আরিফুল ইসলাম ওরফে টাইগারকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। টাইগার এ হত্যা মামলার ৬ নম্বর আসামি। বর্তমানে সে জামিন নিয়ে আজিজুল আলম বেন্টুর পৃষ্ঠপোষকতায় কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। বেশির ভাগ সময়ই বেন্টুর পাশে থাকে টাইগার।

এ বছরের ১৯ আগস্ট নগরীর ষষ্টিতলা চালপট্টি মোড় এলাকায় তল্লাশি করার সময় গ্রেপ্তার করা হয় অভিজিৎ হালদার রিংকুসহ (২২) তিনজনকে। ওসি নিবারণ চন্দ  বর্মণ জানান, তাদের কাছ থেকে একটি ৭.৬৫ পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, ছয় রাউন্ড গুলি ও একটি চাকু উদ্ধার করা হয়। অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার হওয়া এই সন্ত্রাসীরা বেন্টুর ঘনিষ্ঠ হিসেবে কয়েক বছর ধরেই কাজ করে আসছে।

এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে হড়গ্রাম চারখুটা মোড়ের সুমন নামের এক ব্যক্তির ওপর পরপর দুই দিন হামলার ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সাগর নামের এক ব্যক্তি অভিযোগ করেন, আওয়ামী লীগ নেতা বেন্টুর নির্দেশে কনক, ডিপলু, সাগর, আতিকুল ও আকরাম সুমনের ওপর হামলা চালিয়েছে। এদের নামে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানায় মামলা আছে।

গত বছরের ১৬ আগস্ট রাজশাহী নগরীর উপকণ্ঠ কাটাখালী পৌর সদরে নজরুল ইসলাম (৩৮) নামের এক ব্যবসায়ীকে গুলি করে হত্যাচেষ্টা চালায় বেন্টুর ঘনিষ্ঠ সাহাঙ্গীর ও শরিয়ত। কাটাখালী পৌর মেয়র আব্বাস আলী জানান, বালুঘাটের দখল নিতে বেন্টু ওই সন্ত্রাসীদের দিয়ে গুলি চালিয়েছিলেন। পরে পুলিশ সাহাঙ্গীরকে গ্রেপ্তার ও তার কাছ থেকে অস্ত্র উদ্ধার করে।

সর্বশেষ ২০ অক্টোবর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী ফিরোজ আনামকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়েছে ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত কর্মী অনিক মাহমুদ বনি। গত ১৪ অক্টোবর বেন্টুর হয়ে নগরীতে মানববন্ধন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব ছিলেন অনিক মাহমুদ বনি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা