kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

আইসিসিবিতে আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী

অবকাঠামো সামগ্রীর হরেক আয়োজন

তানজিদ বসুনিয়া   

১৮ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অবকাঠামো সামগ্রীর হরেক আয়োজন

ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় বিল্ড বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল এক্সপোর উদ্বোধন শেষে স্টল ঘুরে দেখছেন অতিথিরা। ছবি : কালের কণ্ঠ

পানি বিশুদ্ধকরণ যন্ত্রপাতি নিয়ে হাজির দেশি-বিদেশি স্টলগুলোতে ঘুরে ঘুরে কথা বলতে দেখা গেল রাজধানীর মালিবাগের বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা নজরুল ইসলামকে। আলাপচারিতায় এই প্রতিবেদককে বললেন, ‘প্রদর্শনীর খবর শুনে ঘুরে দেখতে এসেছি। আমার পরিবারের জন্য একটি ওয়াটার পিউরিফায়ার লাগবে। কোনটা ভালো হবে তা-ই ঘুরে ঘুরে দেখছি। এ সম্পর্কিত জ্ঞান অর্জন করাটাও একটা উদ্দেশ্য বটে। নিজেও এই খাতে ব্যবসার চিন্তা করছি।’

নাইস এন্টারপ্রাইজের মালিক এস এম হাসানকে দেখা গেল কনস্ট্রাকশন কম্পানিগুলোর সঙ্গে নানা বিষয় নিয়ে কথা বলছেন। এগিয়ে যেতেই কালের কণ্ঠকে বললেন, ‘আমার নিজস্ব একটি কম্পানি আছে। আমরা দেশব্যাপী গ্রাহকদের কাছে কনস্ট্রাকশনের যন্ত্রপাতি সরবরাহ করি। আমরা নিজেরা সেসব যন্ত্রপাতি তৈরি না করে বিভিন্ন কম্পানির মাধ্যমে নিয়ে গ্রাহকদের কাছে বিক্রি করি। এখানে যেহেতু অনেক বড় বড় কম্পানি এসেছে তাই এদের প্রডাক্ট দেখতে এসেছি। প্রডাক্ট পছন্দ হলে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে আমার কম্পানির মাধ্যমে গ্রাহকদের কাছে সরবরাহ করব।’

আর্ট মুভিং সলিউশনের সহকারী ব্যবস্থাপক সালমান ফার্সি মালিক বললেন, ‘আমরা মূলত কনস্ট্রাকশনের কাজের সঙ্গে জড়িত। আমাদের কাজের জন্য কিছু হেভিওয়েট কনস্ট্রাকশন ইকুইপমেন্ট দরকার। আর এখানে দেশি-বিদেশি অনেক কম্পানি এসেছে, যারা এই ইকুইপমেন্টগুলো সরবরাহ করে থাকে। তাদের কাছ থেকে তথ্য নিচ্ছি, পরে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব।’

অবকাঠামো উন্নয়নসংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ সরঞ্জাম ও পরিষেবা সম্পর্কে সংশ্লিষ্টদের সম্যক ধারণা দিতে অবকাঠামো শিল্প খাতের পণ্য নিয়ে দেশের সবচেয়ে বড় আসর বসেছে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি)। এই আয়োজনে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশসহ ১৪টি দেশের ২৬৭টি কম্পানি। সেমস গ্লোবালের আয়োজনে ‘২৬তম বিল্ড বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো ২০১৯’ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী এই আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী। শুরুর দিনেই ব্যস্ত সময় পার করেছেন সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রের ব্যবসায়ী, সার্ভিস প্রভাইডার, উদ্যোক্তা ও দর্শনার্থীরা।

সমন্বিত এই প্রদর্শনীর মাধ্যমে ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপাররা অবকাঠামো উন্নয়নসংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ সরঞ্জাম ও পরিষেবাগুলো সম্পর্কে জানার সুযোগ পাচ্ছেন। প্রদর্শনীর পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে ‘২২তম পাওয়ার বাংলাদেশ এক্সপো-২০১৯’, ‘১৭তম সোলার বাংলাদেশ এক্সপো-২০১৯’, ‘দ্বিতীয় ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল লাইটিং এক্সপো-২০১৯’, ‘তৃতীয় ওয়াটার বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো-২০১৯’, ‘২০তম রিয়েল এস্টেট এক্সপো বাংলাদেশ-২০১৯’ এবং ‘চতুর্থ ইন্টারন্যাশনাল সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি এক্সপো বাংলাদেশ-২০১৯’।

আন্তর্জাতিক এই প্রদর্শনীর উদ্বোধনী দিনে গতকাল সকাল সাড়ে ১০টায় আইসিসিবির সেমিনার হলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম এমপি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।

মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে এই প্রদর্শনী নতুন মাত্রা যোগ করবে। আমরা এখন আর পিছিয়ে নেই। সারা বিশ্বের কাছে একটি বিস্ময়ের নাম বাংলাদেশ; অনেক সমস্যা থাকার পরও যে দেশটি দুর্দান্ত গতিতে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা