kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিশ্বব্যাংকের পূর্বাভাস

প্রবৃদ্ধিতে ভারতের চেয়ে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



প্রবৃদ্ধিতে ভারতের চেয়ে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ

মোট দেশজ উত্পাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধিতে ভারতের চেয়ে এগিয়ে থাকবে বাংলাদেশ। এ পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। গতকাল রবিবার জিডিপি প্রবৃদ্ধি নিয়ে বিশ্বব্যাংকের পূর্বাভাসে বিষয়টি সামনে আসে।

সংস্থাটি বলছে, চলতি অর্থবছরে ভারতের প্রবৃদ্ধি কমে দাঁড়াতে পারে ৬ শতাংশে। তবে ২০২১ সালে এর কিছুটা উন্নতি হয়ে ৬.৯ শতাংশ এবং ২০২২ সালে তা ৭.২ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক, যা বাংলাদেশের তুলনায় অনেক কম। অন্যদিকে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি ২০১৮ সালের ৭.৯ শতাংশ থেকে বেড়ে চলতি অর্থবছর ৮.১ শতাংশে পৌঁছতে পারে বলে আশা করা হয়েছে। ২০২০ ও ২০২১ সালে এই প্রবৃদ্ধির পরিমাণ যথাক্রমে ৭.২ ও ৭.৩ হতে পারে।

বিশ্বব্যাংকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এ বছর পুরো বিশ্বের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার নিম্নমুখী হওয়ায় দক্ষিণ এশিয়ার গড় প্রবৃদ্ধিও নিম্নমুখী হবে। এটি কমে ৫.৯ শতাংশে চলে আসতে পারে, যা গত এপ্রিলের অনুমানের তুলনায় ১.১ শতাংশ কম। এ ছাড়া চলতি অর্থবছরে অর্থনৈতিকভাবে অস্থিতিশীল পাকিস্তানের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিও ২.৪ শতাংশ কমে যাবে।

সাউথ এশিয়া ইকোনমিক ফোকাস শিরোনামে বিশ্বব্যাংকের সর্বশেষ এই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ অঞ্চলে আগে অভ্যন্তরীণ চাহিদা প্রতিনিয়ত বাড়তে থাকলেও এখন তা কমতে শুরু করেছে। এ কারণে দক্ষিণ এশিয়ার অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি কম হওয়ার এই প্রবণতা তৈরি হয়েছে।

বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের প্রধান অর্থনীতিবিদ হ্যানস টাইমার বলেন, ‘বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্প খাত ব্যাপক লাভবান হয়েছে। ফলে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধির বেশ উন্নতি ঘটেছে।’ তিনি বলেন, ‘সাধারণভাবে আমরা বিভিন্ন তথ্য-উপাত্তের মাধ্যমে দেখতে পাচ্ছি, বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশগুলোর তুলনায় বেশ ভালো করছে। বিশেষ করে ভারত, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের চেয়ে। বাংলাদেশের শিল্প পণ্য উত্পাদন এবং তাদের রপ্তানি বিশ্লেষণ করে আমরা তা দেখতে পাচ্ছি।’

বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের প্রধান ওই অর্থনীতিবিদ বলেন, ‘এটা নিশ্চিতভাবেই বলা যায় এবং এর আগেও অনেকবার বলা হয়েছে যে বাংলাদেশ তৈরি পোশাক শিল্প খাতে অনেক ভালো করছে। এ ছাড়া তাদের ওই ক্রমবর্ধমান শিল্প যুক্তরাষ্ট্র-চীন বাণিজ্যযুদ্ধের সুবিধাও পাচ্ছে।’

নেপালে চলতি বছর বার্ষিক প্রবৃদ্ধি গড়ে ৬.৫ শতাংশ এবং পরের বছর এর পরিমাণও বেড়ে যেতে পারে। পর্যটক আনাগোনা ও সরকারি ব্যয় বাড়ায় গতিশীল সেবা ও নির্মাণ কর্মকাণ্ড প্রবৃদ্ধি বাড়ায় ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছে বিশ্বব্যাংক। সূত্র : পিটিআই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা