kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাইল ছাত্রলীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাইল ছাত্রলীগ

আবরার হত্যাকাণ্ড

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের খুনিদের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। পাশাপাশি এই হত্যাকাণ্ডকে ঘিরে কোনো দল যেন ফায়দা লুটতে না পারে সে বিষয়ে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র সমাজকে সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি।

গতকাল বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যাকাণ্ডের প্রেক্ষিতে গৃহীত ব্যবস্থার পর্যালোচনা ও হত্যাকারীদের দ্রুততম সময়ে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য লিখিত বক্তব্য তুলে ধরেন।

লেখক ভট্টাচার্য বলেন, আবরার ফাহাদের হত্যাকান্ডে ছাত্রলীগের কতিপয় নেতৃবৃন্দেরও সম্পৃক্তার অভিযোগ ওঠায় দ্রুততম সময়ে নানামুখী সাংগঠনিক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ১১ জনকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারও করা হয়েছে। আমরা দৃঢ়কণ্ঠে বলছি, ছাত্রলীগে কোনো অপরাধীর জায়গা হবে না। ছাত্রলীগ আদর্শিক সংগঠন, আদর্শ নিয়েই রাজনীতি করতে হবে।’

তিনি বলেন, এই হত্যাকান্ডের ঘটনায় ছাত্রলীগ তার সাংগঠনিক অবস্থান পরিষ্কার করার পরও কিছু কুচক্রী মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধকরা, বিভিন্নভাবে ধর্মীয় উন্মাদনা ছড়িয়ে দেশে সামপ্রদায়িক অস্থিরতা তৈরির চেষ্টা, দেশবিরোধী চুক্তির ধোঁয়া তুলে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশকে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, ‘দেশের ছাত্রসমাজের প্রতি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আহ্বান, নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সকল প্রকার ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় আপনাদের প্রত্যেককে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হবে। আবরার হত্যাকাণ্ডের অনাকাঙ্খিত ঘটনাটিকে পুঁজি করে কেউ যেন দলীয় রাজনীতি চাঙা করার নামে আন্দোলন-আন্দোলন খেলায় মেতে উঠতে না পারে। শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বিনষ্ট করতে না পারে সে বিষয়ে সজাগ থাকা ছাত্রসমাজের নৈতিক দায়িত্ব।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা