kalerkantho

বুধবার । ২৩ অক্টোবর ২০১৯। ৭ কাতির্ক ১৪২৬। ২৩ সফর ১৪৪১                 

সেই ডিসির বিষয়ে প্রতিবেদন জমা

অভিযোগের সত্যতা মিলেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অভিযোগের সত্যতা মিলেছে

ফাইল ছবি

জামালপুরের সাবেক ডিসি আহমেদ কবীরের বিরুদ্ধে নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির সুপারিশ করে গতকাল রবিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ গঠিত তদন্তদল। এখন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্র মতে, ডিসির খাস কামরায় এক নারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থার ভিডিও ফুটেজ ফাঁস হওয়ার পর ময়মনসিংহের বিভাগীয় কমিশনারের অফিসও ঘটনার প্রাথমিক সত্যতার বিষয়টি জানিয়েছিল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে।

প্রশাসনের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ উঠলে সেটি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় তদন্ত করে। জামালপুরের ডিসির ঘটনাটি পুরো প্রশাসনের মুখে চুনকালি মাখিয়ে দিয়েছে। এ কারণে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ দ্রুত তদন্ত কমিটি গঠন করে। এখন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এই তদন্তের ভিত্তিতে পদক্ষেপ নেবে।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ও সচিব ঢাকায় না থাকায় গতকাল এ বিষয়ে তাঁদের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

বেশ কয়েকটি সূত্রে জানা গেছে, ভিডিও ফুটেজের বিষয়ে তদন্ত করার নির্দেশ দেওয়া হলেও কমিটি কয়েকটি সুপারিশও করেছে। এর মধ্যে মাঠ প্রশাসনে মনিটরিংয়ে দুর্বলতার বিষয়টি উঠে এসেছে। কেন্দ্রীয়ভাবে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে মাঠ প্রশাসনের বিষয়গুলো যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে দেখা হলেও বিভাগীয় কমিশনারদের অফিস যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে তা পালন করতে পারছে না। তাই মনিটরিংয়ে আরো উদ্যোগী হওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

জামালপুরের তৎকালীন ডিসি আহমেদ কবীর ও তাঁর অফিস সহায়কের ঘনিষ্ঠতার ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছিল গত ২২ আগস্ট। এরপর ২৫ আগস্ট ডিসিকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পদায়ন করা হয়। একই দিনে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক যুগ্ম সচিবকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে ১০ কার্যদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়। এরপর কমিটি আরো ১০ কার্যদিবস বৃদ্ধি করে গতকাল শেষ কার্যদিবসে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা