kalerkantho

সোমবার । ১৪ অক্টোবর ২০১৯। ২৯ আশ্বিন ১৪২৬। ১৪ সফর ১৪৪১       

হাসপাতালের কোয়ার্টারে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ‘ধর্ষণ’

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, পিরোজপুর   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাসপাতালের কোয়ার্টারে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ‘ধর্ষণ’

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় পাঁচ তরুণের বিরুদ্ধে এক তরুণীকে (১৯) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ অনুযায়ী, ওই পাঁচ তরুণ তাঁকে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের আবাসিক ভবনের (কোয়ার্টার) ছাদে নিয়ে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় পাঁচজনের নামে মামলা হয়েছে।

মামলার আসামিরা হলেন উপজেলার দাউদখালী গ্রামের সুমন খান (২২), ইমরান হাওলাদার (২০) ও রাজু হাওলাদার (২৫)। অজ্ঞাতপরিচয় আসামি করা হয়েছে দুজনকে।

ভুক্তভোগী তরুণী দেবত্র গ্রামে একজনের বাড়িতে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করেন। মামলার এজাহারে তিনি অভিযোগ করেছেন, আসামিরা প্রায়ই রাস্তাঘাটে তাঁকে উত্ত্যক্ত করতেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে দেবত্র গ্রামে যাচ্ছিলেন তিনি। যাওয়ার পথে আসামিরা মুখ চেপে ধরে তাঁকে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রসংলগ্ন কোয়ার্টারের ছাদে নিয়ে যান। এরপর আসামিরা তাঁকে ধর্ষণ করেন।

মামলায় বলা হয়, রাত দেড়টার দিকে মাছ শিকারের উদ্দেশ্যে কোয়ার্টারের পাশের সড়ক দিয়ে যাচ্ছিলেন আব্দুর রহমান নামের এক ব্যক্তি। তিনি কোয়ার্টারের ছাদে কান্নাকাটির শব্দ পেয়ে এগিয়ে যান। এরপর টর্চ লাইট মারতেই আসামিরা ওই তরুণীকে রেখে পালিয়ে যান। পরে আব্দুর রহমান মেয়েটিকে উদ্ধার করে বাড়ি পৌঁছে দেন।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি সৈয়দ আব্দুল্লাহ জানান, গৃহকর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। আর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তরুণীকে পাঠানো হয়েছে পিরোজপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ে।

দাউদখালী ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ‘ফ্যামিলি ওয়েলফেয়ার ভিজিটর’ (এফডাব্লিউভি) নাজমুন নাহার বলেন, ‘আমি প্রশিক্ষণের কাজে খুলনায় আছি। তবে ঘটনা শুনেছি। যতদূর মনে হয়েছে, ধর্ষণকারীরা একটি কাঁঠালগাছ বেয়ে কোয়ার্টারের ছাদে উঠেছেন।’

শ্রীনগরে যৌন হয়রানির অভিযোগ

কালের কণ্ঠ’র মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, শ্রীনগরে এক গৃহবধূকে (৩০) শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। ওই গৃহবধূর অভিযোগ, কাজলপুর গ্রামের আশিস (৪০) তাঁকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করেন। সর্বশেষ গত ১২ সেপ্টেম্বর তাঁকে জোর করে বাড়ির পাশে একটি বাগানে নেওয়ার চেষ্টা চালান আশিস। ওই নারী এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ করেছেন। গৃহবধূর স্বামী বলেন, ‘এর আগে গ্রামে সালিস করে একাধিকবার আশিসকে সতর্ক করা হয়েছে। কিন্তু তিনি আমার স্ত্রীকে উত্ত্যক্ত করেই যাচ্ছেন।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা