kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

নীলক্ষেতে সড়ক দুর্ঘটনা

মেয়ে বাসায় ফিরলেও বাবা ফেরেননি

সড়কে নিভল আরো আট প্রাণ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



মেয়ে বাসায় ফিরলেও বাবা ফেরেননি

আদরের মেয়ে সামিয়াকে (১৬) মোটরসাইকেলে করে স্কুলে আনা-নেওয়া আফছার উদ্দিনের (৫৮) রোজকার রুটিন। গতকাল রবিবারও সামিয়াকে স্কুলে নিরাপদে পৌঁছে দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু মোটরসাইকেলে চেপে বাসায় আর আনতে পারেননি। তার আগেই সড়কে জীবন বিলিয়ে গেলেন আফছার উদ্দিন। মেয়ে সামিয়া বাসায় ফিরেছে ঠিকই, তবে একবুক কষ্ট ফেরি করে বাবার লাশ নিয়ে।

গতকাল রবিবার দুপুর পৌনে ২টার দিকে রাজধানীর নীলক্ষেত মোড়ে প্রাইভেট কারের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী আফছার আহত হন। পরে গুরুতর অবস্থায় পথচারীরা তাঁকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে দুপুর আড়াইটার দিকে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থলে থাকা উদ্ধারকারী শরিফ ও রাজিদুল জানান, দুপুরের দিকে নীলক্ষেত মোড়ে ফিলিং স্টেশন থেকে আফছার উদ্দিন মোটরসাইকেলে তেল নিয়ে বের হচ্ছিলেন। একই সময় প্রাইভেট কারটি তেল নিয়ে নিউ মার্কেটের দিকে যাওয়ার সময় ওই মোটরসাইকেলের পেছনে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেলটি ছিটকে পড়লে তিনি (আফছার উদ্দিন) প্রাইভেট কারের সঙ্গে আটকে যান। এ সময় প্রাইভেট কারটি তাঁকে বেশ কিছুদূর পর্যন্ত টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যায়। পরে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলেও তাঁকে বাঁচানো যায়নি।

জানা যায়, আফছার বংশালের ৮৯ নম্বর মকিম বাজার এলাকার বাসায় থাকতেন। তাঁর বাবার নাম মৃত হাজি আফতাব উদ্দিন। তিনি বংশালে মোটরসাইকেলের হেলমেটের ব্যবসায়ী ছিলেন। ৯ ভাই ও পাঁচ বোনের মধ্যে আফছার ছিলেন সবার বড়।

আফছারের ভাই রিয়াজ উদ্দিন বলেন, ‘আমার ভাইয়ের দুই মেয়ে। বড় মেয়ে ফারিয়ার বিয়ে দিয়েছেন। ছোট মেয়ে সামিয়া পলাশীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিভার্সিটি স্কুলের দশম শ্রেণিতে পড়ছে। প্রতিদিনের মতো মেয়েকে বাসায় আনার জন্য বের হয়েছিলেন ভাই। এটাই যে ভাইয়ের শেষযাত্রা বুঝতে পারিনি।’ আফছারের ছোট মেয়ে সামিয়া কথা বলতে গিয়ে বারবার মূর্ছা যাচ্ছিলেন। কথা বলতে না পারলেও বাবার মৃত্যুর জন্য নিজেকে অপরাধী বলে প্রলাপ বকছিলেন।

এ ব্যাপারে লালবাগ থানার ওসি কে এম আশরাফ উদ্দিন বলেন, ‘এ ঘটনায় চালক আফজাল হোসেনকে (৩৫) আটক করে প্রাইভেট কারটি থানায় রাখা হয়েছে। আফছার উদ্দিনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রাখা হয়েছে।’

এদিকে মাদারীপুরের কালকিনিতে বাসের ধাক্কায় নারীসহ ভ্যানের দুই যাত্রী নিহত হয়েছেন। গতকাল রবিবার সকালে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের কালকিনির ডাসার কর্ণপাড়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন কালকিনির পশ্চিম মিনাজদি এলাকার মতলেব মাতুব্বর (৬০) ও কাজীবাকাই ইউনিয়নের মাইজপাড়া গ্রামের রাজ্জাক মোল্লার স্ত্রী উম্মে হানি বেগম (৫২)।

বান্দরবান শহরের অনাথ আশ্রম এলাকায় গত শনিবার রাতে বাস-মোটরবাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ইমরান হোসেন জনি (২৪) নামের এক পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন। ইমরান শহরের বালাঘাটার পুলিশ লাইনে কর্মরত ছিলেন। তাঁর বাড়ি ফেনী জেলায়।

এদিকে রংপুরের পীরগাছায় পিকআপ ভ্যান ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নাজমুল ইসলাম (৪০) নামের এক মোটরসাইকেলচালক নিহত ও অন্য দুই আরোহী গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল রবিবার দুপুরে উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের মুচির বাজার নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নাজমুল উপজেলার অন্নদানগর ইউনিয়নের প্রতাপ জয়শেন গ্রামের সৈয়দ আলীর ছেলে।

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে গাড়িচাপায় এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল রবিবার সকালে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নছরতপুর নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ওই নারীর তাত্ক্ষণিক পরিচয় জানা যায়নি।

এদিকে নওগাঁর রাণীনগরে ট্রাক্টরের ধাক্কায় মোটরসাইকেলে থাকা গৃহবধূ মেরী বেগম (৩৫) নিহত হয়েছেন। গত শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ঝিনা রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে। মেরী বেগম আত্রাই উপজেলার সাহাগোলা গ্রামের  বিদ্যুত হোসেনের স্ত্রী।

মাদারীপুরের শিবচরে ট্রাকচাপায় জাকির ফকির (৩৫) নামের এক ভ্যানচালক নিহত হয়েছেন। গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের হাজি শরিয়তউল্লাহ সেতুর পূর্বপাড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জাকির হোসেন উপজেলার বাবলাতলা এলাকার ইমারত ফকিরের ছেলে।

ফরিদপুর শহরের হাবেলি গোপালপুর এলাকায় গতকাল রবিবার ইজিবাইকের ধাক্কায় নাসির শেখ (৩৬) নামের এক মোটরসাইকেল চালক নিহত হয়েছেন। (প্রতিবেদন তৈরিতে তথ্য দিয়ে সহায়তা করেছেন কালের কণ্ঠ’র স্থানীয় প্রতিনিধিরা)

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা