kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

ফেরদৌস ও নূরকে নিয়ে মোদির তোপ

ভিনদেশি এনে ভোটের প্রচার করাচ্ছেন মমতা

কলকাতা প্রতিনিধি   

২১ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভিনদেশি এনে ভোটের  প্রচার করাচ্ছেন মমতা

বাংলাদেশের অভিনেতা ফেরদৌস ও গাজী আবদুন নূর ইস্যুতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একহাত নিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেছেন,  লোকসভা নির্বাচনে জেতার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সব কিছু করতে পারেন। তাই বাংলাদেশি এনে ভোটের প্রচার করাচ্ছেন।

কলকাতার বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে যাওয়া ফেরদৌস সম্প্রতি সেখানে রাজ্যে ক্ষমতাসীন মমতার দল তৃণমূলের এক প্রার্থীর পক্ষে প্রচারে নেমে ব্যাপক সমালোচনায় পড়েন। ঘটনার পর কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ফেরদৌসের ভিসা বাতিল করে এবং তাঁকে দেশ ছাড়ার নির্দেশ দেয়। দেশে ফিরে আসা ফেরদৌস ওই ঘটনার জন্য ভুল স্বীকার করে সবার কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন। ফেরদৌসের পর বাংলাদেশের আরেক অভিনেতা গাজী আবদুন নূরকেও এক তৃণমূল প্রার্থীর প্রচারে অংশ নেওয়ার অভিযোগে দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। বিষয়টি নিয়ে রাজনীতিতে সমালোচনা চললেও মোদি এত দিন কোনো কথা বলেননি। গতকাল শনিবার পশ্চিমবঙ্গের সীমান্তবর্তী জেলা দক্ষিণ দিনাজপুরে এক জনসভায় প্রথম তিনি মুখ খুললেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এ রাজ্যে একটাই কাজ হয়, সেটা হচ্ছে অনুপ্রবেশ। সেনার কথায় বিশ্বাস না করে দিদি জঙ্গি মারার হিসাব চাইছিলেন। ইতিহাসে যা কখনো হয়নি, দিদি সেটাও করেছেন। ভিনদেশি নাগরিকদের এনে ভোটের প্রচার করাচ্ছেন।’

মোদি বলেন, ‘মা মাটি মানুষের নামে বাংলার জনতাকে লুট করেছেন মমতা দিদি। আগে উনাকে সততার প্রতীক ভাবতাম আমি। তবে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর আমার ভুল ভাঙল। আমি ভুল বুঝেছিলাম, লোকে তো ভুল বুঝবেই। তবে ২৩ মে’র পর স্পিডব্রেকার দিদি বুঝবেন লুট ও গুণ্ডামির পরিণাম কী হতে পারে।’

এ ছাড়া সরাসরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেককে আক্রমণ করেন মোদি। তিনি বলেন, ‘পিসি-ভাতিজা মিলে রাজ্যের সংস্কৃতি নষ্ট করছেন।’ এদিনের আক্রমণের একটি বড় অংশ জুড়েই ছিল খাগড়াগড়ে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে জঙ্গিদের আশ্রয় দিয়েছেন বলেও কটাক্ষ করেন তিনি।

 

মন্তব্য