kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পুরান ঢাকায় ফের বহুতল ভবনে আগুন

অভিযানে ১৫টি প্রতিষ্ঠানের সেবা সংযোগ বিচ্ছিন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পুরান ঢাকায় ফের বহুতল ভবনে আগুন

ফাইল ছবি

পুরান ঢাকায় ফের একটি বহুতল ভবনে আগুনের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নবাবপুরে একটি পুরান টায়ারের দোকানে আগুন লেগে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়ায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন পুরোপরি নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এতে হতাহত হয়নি কেউ।

এর আগে গত ২০ ফেব্রুয়ারি চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় এ পর্যন্ত ৭৪ জনের মৃত্যু  হয়েছে। ওই ঘটনার পর পুরান ঢাকায় রাসায়নিক মজুদের বিরুদ্ধে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) নেতৃত্বে সরকার গঠিত টাস্কফোর্স অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

গতকালের আগুন নিয়ন্ত্রণে নেতৃত্ব দেওয়া ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল আলিম কালের কণ্ঠকে বলেন, ছয়তলা ভবনটিতে বিভিন্ন টায়ার, গাড়ির ফোম ও হাসপাতাল সরঞ্জামের কারখানা ও গুদাম ছিল। আগুন পাঁচতলা থেকে লেগে ছয়তলায় ছড়িয়েছিল। তবে কারখানা ও গুদাম বন্ধ থাকায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেটি। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লাগতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা পাওয়া গেছে।

ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানিয়েছে, গতকাল দুপুর আড়াইটার দিকে আগুন লাগে। এরপর ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট বিকেল সোয়া ৪টার দিকে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে এনে পরিস্থিতি শান্ত করে। এর আগে আগুনের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়ায়। আগুন নির্বাপণের পর ওই ভবনে সরেজমিনে দেখা যায়, সিঁড়িসহ পুরো ভবনেই বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জাম। তবে কোনো কেমিক্যালের গুদাম বা সরঞ্জাম পায়নি ফায়ার সার্ভিস। 

টাস্কফোর্সের অভিযান: চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ আগুনের পর টাস্কফোর্সের রাসায়নিক গুদাম উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত আছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সপ্তম দিনের মতো অভিযান চালিয়ে আরো ১৫টি ভবনের পরিষেবা (গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির লাইন) বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে অভিযানকারী টিম। এ নিয়ে গত সাত দিনে মোট ১১৭টি ভবনের পরিষেবা বিচ্ছিন্ন করার তথ্য পাওয়া গেছে। গতকালের অভিযানের সময় আরো ছয়টি প্রতিষ্ঠানের মালিককে কারখানা সরিয়ে নেওয়ার জন্য সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা