kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ নভেম্বর ২০১৯। ৩০ কার্তিক ১৪২৬। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

সবিশেষ

সন্তান যমজ বাবা ভিন্ন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সন্তান যমজ বাবা ভিন্ন

আলেকজান্ডার ও ক্যালডার যমজ ভাই-বোন। কিন্তু তাঁদের বাবা একজন নন, বরং ভিন্ন দুই ব্রিটিশ ব্যক্তি। আলেকজান্ডার হলেন সায়মনের মেয়ে, আর তাঁর ভাই ক্যালডার হলেন গ্রিমের ছেলে। কিন্তু কিভাবে যমজ সন্তানের ভিন্ন বাবা থাকা সম্ভব?

সায়মন ও গ্রিম বার্নি-এডওয়ার্ডস যখন সিদ্ধান্ত নিলেন যে তাঁরা বাবা হতে চান, তখন তাঁদের সামনে এটি একটি বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। তাঁরা হাতে গোনা ব্রিটিশ দম্পতির সদস্য, ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন বা আইভিএফ  গর্ভধারণ পদ্ধতির সময় যাঁদের দুজনের কাছ থেকে একটি করে ভ্রূণ বেছে নেওয়া হয় এবং এই দুটি ভ্রূণ একই সঙ্গে একই সময়ে একজন সারোগেট মায়ের শরীরে ইমপ্ল্যান্ট করা হয়।

এই প্রক্রিয়াটির লক্ষ্য ছিল পর পর দুইবারের গর্ভধারণ থেকে দুজনের ডিএনএ-সংবলিত দুটি বাচ্চা ভূমিষ্ঠ করা। তবে একটি সংস্থা একজন সারোগেট মায়ের থেকে একই সঙ্গে দুটি শিশু জন্মদানের সম্ভাবনার কথা জানায়। সেই সারোগেট মাকে খুঁজে পেতেও সহায়তা করে সংস্থাটি। সায়মন ও গ্রিম যুক্তরাজ্যে থাকলেও এই প্রক্রিয়ার জন্য তাঁদের দেশের বাইরে যেতে হয়েছিল।

সায়মন বলেছেন, ‘আমরা আমাদের চিকিৎসা করিয়েছি যুক্তরাষ্ট্রের নেভাডা অঙ্গরাজ্যের লাস ভেগাসে এবং সেখানকার একজন সারোগেট মাকে পেয়ে যাই আমরা।’

সারোগেট মায়ের শরীরে অর্ধেক সায়মন ও অর্ধেক গ্রিমের শুক্রাণু ফার্টিলাইজ করা হয়। তাঁদের শক্তিশালী ভ্রূণ গর্ভে ধারণ করেন এই মা। আর সন্তান ভূমিষ্ঠ করা হয় কানাডায়।

কানাডার নাগরিক ওই সারোগেট মায়ের নাম মেগ স্টোন, যিনি সায়মন ও গ্রিমের সন্তান জন্ম দেওয়ার ব্যাপারে রাজি হন। সাময়মন বলেন, ‘আমরা আমাদের সন্তান ভূমিষ্ঠ করতে কানাডাকে বেছে নিয়েছিলাম, কারণ তাদের আইনি কাঠামো আমাদের পছন্দ হয়েছিল।’

ওই সারোগেট মায়ের সঙ্গে সব সময় সুসম্পর্ক রাখার ব্যাপারে বদ্ধপরিকর এই দুই বাবা। যদিও সারোগেট মায়ের সঙ্গে সম্পর্ক রাখার নিয়ম নেই। সূত্র : বিবিসি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা