kalerkantho

তালিকায় শীর্ষে বাংলাদেশ

দেশের ৩৬% মোবাইল ফোনে ম্যালওয়্যার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশের ৩৬% মোবাইল ফোনে ম্যালওয়্যার

প্রতীকী ছবি

সাইবার নিরাপত্তায় বিশ্বের ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ষষ্ঠ। এর মধ্যে মোবাইল ফোনে ম্যালওয়্যার উপস্থিতির হিসাবে বাংলাদেশ রয়েছে শীর্ষে। যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কমপারিটেক তাদের গবেষণা প্রতিবেদনে বলেছে, বাংলাদেশের মোট মোবাইলের ৩৫ দশমিক ৯১ ও কমপিউটারের ১৯ দশমিক ৭ শতাংশ ম্যালওয়্যার বা ক্ষতিকর প্রগ্রামে আক্রান্ত। সম্প্রতি বিশ্বের ৬০ দেশের সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে কমপারিটেক।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বের ৬০টি দেশের মধ্যে বাজে সাইবার নিরাপত্তার দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান ছয় নম্বরে। এর মধ্যে দেশের আর্থিক খাতে আক্রমণ ১ দশমিক ৩ শতাংশ, আইওটি বা টেলনেট ক্ষেত্রে আক্রমণ দশমিক ৩৮ শতাংশ, ক্রিপটোমাইনারসের আক্রমণ ৩ দশমিক ৩১ শতাংশ।

কমপারিটেকের হিসাবে বাংলাদেশের স্কোর ৪৭ দশমিক ২১ পয়েন্ট। বাংলাদেশের পেছনে রয়েছে শুধু উজবেকিস্তান, তানজানিয়া, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া ও আলজেরিয়া। সাইবার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বাজে অবস্থা আলজেরিয়ার। তাদের স্কোর ৫৫ দশমিক ৭৫। তালিকায় ৪৭ দশমিক ১০ পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশের চেয়ে একধাপ এগিয়ে পাকিস্তান। ভারতের অবস্থান ১৫তম। ভারতের স্কোর ৩৯ দশমিক ৩০। এ তালিকায় যে দেশের স্কোর সবচেয়ে কম সে দেশ সাইবার নিরাপত্তায় তত বেশি শক্তিশালী। তালিকায় মাত্র ৮ দশমিক ৮ স্কোর নিয়ে সাইবার নিরাপত্তার দিক থেকে শীর্ষে রয়েছে জাপান। এর পরের অবস্থানে যথাক্রমে ফ্রান্স, কানাডা, ডেনমার্ক, যুক্তরাষ্ট্র, আয়ারল্যান্ড, সুইডেন, যুক্তরাজ্য, নেদারল্যান্ডস, সিঙ্গাপুর ও অস্ট্রেলিয়া।

মোবাইল ফোন আমদানিকারকদের সংগঠন বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইম্পোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমপিআইএ) হিসাব অনুযায়ী দেশে বর্তমানে ৯ কোটি মোবাইল ফোন ও ১৫ কোটি সিম সক্রিয় রয়েছে। মোট ফোনের মধ্যে অ্যানড্রয়েড ব্যবহারকারী ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ।

কমপারিটেক তাদের প্রতিবেদনে যে বিষয়গুলো বিবেচনা করেছে, সেখানে বাংলাদেশের সাইবার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে বাজে অবস্থানের জন্য মোবাইল ম্যালওয়্যার ও কম্পিউটার ম্যালওয়্যারের বিষয়টি বেশি গুরুত্ব পেয়েছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যাপক পার্থক্য রয়েছে। এর মধ্যে ম্যালওয়্যারের আক্রমণের হার বা সাইবার নিরাপত্তাসংক্রান্ত হালনাগাদ আইন রয়েছে।

কমপারিটেক জানায়, বাংলাদেশসহ প্রতিটি দেশের সাইবার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে আরো উন্নতি করার সুযোগ রয়েছে। কম্পিউটার ও মোবাইল খাতে আরো নিরাপত্তা বাড়ানো, সাইবার নিরাপত্তা আইন শক্তিশালী করার মতো বিষয়গুলোতে গুরুত্ব দিতে হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা