kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ওবায়দুল কাদের বললেন

সংলাপে না, ডাকা হবে শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য

প্রসঙ্গ সংলাপ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৫ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সংলাপে না, ডাকা হবে শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচন নিয়ে সংলাপের কোনো বিষয় এখন নেই। শুধু শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য রাজনৈতিক দলগুলোকে গণভবনে ডাকা হবে। গতকাল সোমবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের বর্ধিতসভায় ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন নিয়ে সারা বিশ্বের কোথাও কোনো সংশয় নেই, গণতান্ত্রিক বিশ্ব থেকে উষ্ণ অভিনন্দন জানিয়েছে কোনো বিতর্ক, কোনো প্রশ্ন না করেই। তাই জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে আবার সংলাপের কোনো সুযোগ নেই।

গণভবনে দলগুলোকে ডাকা হবে কেন—সে প্রশ্নের উত্তরে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘জাতীয় নির্বাচনের আগে ঐক্যফ্রন্টসহ ৭৫টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ হয়েছে। নির্বাচন-পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য চিঠি দিয়ে আবারও তাদের আমন্ত্রণ জানানো হবে। আর সেটা শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য। এখানে কোনো সংলাপ নয়। কোনো সংলাপের আমন্ত্রণ আমরা জানাচ্ছি না।’

একাদশ জাতীয় নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয় উদ্যাপন করতে আগামী ১৯ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের মহাসমাবেশ সফল করতে মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের ওই বর্ধিতসভার আয়োজন করা হয়। সেখানে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগর নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

গত রবিবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্ট, যুক্তফ্রন্টসহ ৭৫টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে গণভবনে সংলাপ হয়েছিল। এখন নির্বাচন শেষ হয়েছে, আমাদের নেত্রী ওয়ার্কিং কমিটি ও উপদেষ্টা পরিষদের যৌথ সভায় বলেছেন, যাঁদের সঙ্গে সংলাপ হয়েছে তাঁদের আমন্ত্রণ করবেন, আহ্বান করবেন, নিমন্ত্রণ করবেন।’

এর প্রতিক্রিয়ায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতকাল বলেন, বিষয়বস্তু জানা গেলে তাঁরা এ আলোচনার প্রস্তাব বিবেচনা করবেন। ঐক্যফ্রন্ট নেতা ড. কামাল হোসেনও গণভবনের আমন্ত্রণকে ইতিবাচক হিসেবে নিয়ে মন্তব্য করেন। এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যানের পর জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নতুন নির্বাচনের পথ তৈরি করতে সংলাপের আহ্বান জানিয়েছিল সরকারকে। ঐক্যফ্রন্ট নিজেদের উদ্যোগেও সংলাপের আয়োজন করবে বলে জানায়। আগামী ২৮ জানুয়ারি এই সংলাপ অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।

নির্বাচন-পরবর্তী পরিস্থিতিতে করণীয় ঠিক করতে জাতীয় প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠেয় ঐক্যফ্রন্টের জাতীয় সংলাপে দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তি ও সব রাজনৈতিক দলের নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হবে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন স্বাক্ষরিত আমন্ত্রণপত্র শিগগির আমন্ত্রিতদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। 

এদিকে গণভবন সংশ্লিষ্ট সূত্র কালের কণ্ঠকে জানিয়েছে, সংলাপে অংশ নেওয়া দলগুলোকে আমন্ত্রণ জানাতে প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। শিগগির তারিখ নির্ধারণ করা হবে। শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে মূলত নেতাদের আপ্যায়িত করা হবে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা