kalerkantho

রবিবার। ৫ আশ্বিন ১৪২৭ । ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০। ২ সফর ১৪৪২

সিরাজগঞ্জে দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যা

দাওয়াতের কথা বলে এক ভাইকে বাড়িতে ডেকে নিয়েছিল প্রতিপক্ষ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি   

৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিরাজগঞ্জে দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যা

সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার পূর্ব কোদালিয়া গ্রামের দক্ষিণপাড়ায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে দুই ভাইকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। গত শুক্রবার বিকেলে খাষপুখুরিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত সদস্য (মেম্বার) শিরিন সুলতানার বাড়ির পাশে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মামলার আসামি শিরিন সুলতানাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

নিহতরা হলেন পূর্ব কোদালিয়ার দক্ষিণপাড়ার এন্তাজ আলীর ছেলে কাউছার হোসেন (২৩) ও মিল্টন (৩২)। কাউছার একজন পল্লী চিকিত্সক।

নিহতের স্বজন ও মামলা সূত্রে জানা যায়, এন্তাজ আলীর সঙ্গে শিরিন সুলতানার স্বামী রফিকুল ইসলাম বকুলের জমিতে নলকূপের ড্রেন নির্মাণসহ জমি নিয়ে বিরোধ চলছে দীর্ঘদিন ধরে। শুক্রবার বিকেলে বকুল দাওয়াতের কথা বলে তাঁর বাড়িতে কাউছার হোসেনকে ডেকে নেন। পরে বাড়ির পাশে বিতর্কিত ড্রেনের জায়গা পরিদর্শনের কথা বলে কাউছারকে

সেখানে নিয়ে যান বকুল। বকুলের সঙ্গে কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে কাউছারকে ঢেঁকির চুরুন ও লাঠি দিয়ে পেটায় বকুলসহ কয়েকজন। সেখানে উপস্থিত কাউছারের বড় ভাই মিল্টনসহ চারজন ঠেকাতে গেলে তাঁদেরও পিটিয়ে আহত করা হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় কাউছারের। আশঙ্কাজনক অবস্থায় মিল্টনকে নেওয়া হয় চৌহালীর খাজা ইউনুস আলী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। পরে তাঁকে ভর্তি করা হয় টাঙ্গাইল সদর হাসাপাতালে। সেখানে চিকিত্সাধীন অবস্থায় শনিবার তাঁর মৃত্যু হয়।

চৌহালী থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় নিহতের মা পাঁচজনকে আসামি করে থানায় গতকাল শনিবার একটি হত্যা মামলা করেছেন। শুক্রবার রাতে আসামি ইউপি সদস্য শিরিন সুলতানাকে আটক করা হয়। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা