kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৫ জুন ২০১৯। ১১ আষাঢ় ১৪২৬। ২২ শাওয়াল ১৪৪০

আয়কর মেলা শুরু

‘সবাই কর দিলে করদাতা হতো চার কোটি’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘সবাই কর দিলে করদাতা হতো চার কোটি’

জনগণকে কর দিতে উৎসাহিত করতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের আয়োজনে সারা দেশের বিভিন্ন কর অঞ্চলে সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা শুরু হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর রমনায় অফিসার্স ক্লাব আঙিনায় ‘আয়কর মেলা-২০১৮’-এর উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে করযোগ্য আরো তিন কোটি মানুষ আছে। এরা সবাই কর দিলে করদাতার সংখ্যা হতো চার কোটি। সরকার করদাতাদের থেকে যে কর নিচ্ছে সেটা তাদের নিজেদের জন্য নয়, দেশের সার্বিক উন্নয়নের জন্যই এই কর নেওয়া হচ্ছে। সবাই কর দিলে দেশ থেকে দারিদ্র্য নির্মূল করা সহজ হতো।’

আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ‘একটা সময় ছিল যখন কর দিতে আমাদের খুব অনীহা ছিল। সবাই মনে করত আজ কর দিলাম, সারা জীবন একটি ফাঁদে পড়ে গেলাম। তবে এখন আর সে অবস্থা নেই।’

তিনি বলেন, ‘আগে আমরা সাত লাখ করদাতার কাছ থেকে কর আদায় করতাম। তখন ১৫ লাখের বেশি করদাতা ছিল না। এখন করদাতার সংখ্যা ৩০ লাখের চেয়ে বেশি হয়ে গেছে এবং বিভিন্নভাবে এখন এক কোটি মানুষ কর দেয়। অনেক ধরনের কর আছে, সেগুলোকে ধরলে এক কোটি মানুষ আজকে কর দেয়।

১৬ কোটি মানুষের মধ্যে এক কোটি করদাতা।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের উন্নয়ন যেভাবে ধাবিত হচ্ছে এক কোটি করদাতা নিয়ে আমরা এখন সন্তুষ্ট নই। আমরা চাই এই এক কোটির সঙ্গে আরো কয়েক কোটি এখানে যুক্ত হওয়া উচিত। অন্তত চার কোটি মানুষের কর দেওয়া উচিত।’ আয়কর মেলা উৎসব পরিণত হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘যারা এখানে কর দিতে এসেছে তাদের বিশেষভাবে অভিনন্দন।’

এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘দেশে আয়কর দেওয়ার প্রবণতা বেড়েছে, কিন্তু তা এখনো জিডিপির ১০ শতাংশের কম; এটাকে আগামী কয়েক বছরে ১৫ ভাগে নিয়ে যেতে হবে।’

তিনি বলেন, মেলায় এসে সাধারণ জনগণ যেসব সুবিধা পায়, সহজে যেমন সেবা পায়, কর অফিসগুলোতেও একই রকম সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মেলা চলবে। ১৩ নভেম্বর শুরু হওয়া এ মেলা শেষ হবে আগামী ১৯ নভেম্বর।

গতকাল সকাল থেকে উৎসবমুখর পরিবেশ ছিল মেলা প্রাঙ্গণে। মূল ফটক থেকে ভেতরে প্রবেশ করতে সকাল থেকেই দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। হেল্পডেস্ক ও তথ্যকেন্দ্রে ছিল করদাতাদের উপচে পড়া ভিড়।

আয়কর মেলা উপলক্ষে রেডিও, টেলিভিশন, প্রিন্ট ও অনলাইন মিডিয়ায় ব্যাপক প্রচারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। কর প্রদানে উৎসাহ ও সচেতনতা বাড়াতে মতবিনিময়সভার আয়োজন করা হয়েছে। দেওয়া হবে করবিষয়ক এসএমএস।

মন্তব্য