kalerkantho

শনিবার । ২৫ মে ২০১৯। ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ১৯ রমজান ১৪৪০

নৈরাজ্য হলেই প্রতিরোধ করা হবে

গোলাম ফারুক পিংকু, সভাপতি, জেলা আওয়ামী লীগ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নৈরাজ্য হলেই প্রতিরোধ করা হবে

লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু বলেছেন, ‘তরুণ প্রজম্ম দিন দিন আওয়ামী লীগের দিকে ঝুঁকছে। তৃণমূল পর্যায়ে আমরা সমর্থন বাড়িয়ে দলের মধ্যে শৃঙ্খলা এনেছি। এ জন্য আগামী নির্বাচনে আমাদের গড়ে ৬০ থেকে ৬৫ শতাংশ ভোট পড়বে। এখানে বিএনপির ‘ভোট ব্যাংক’ বলে কিছু নেই। ৭০ সালের নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের প্রার্থী জয়ী হয়েছিলেন। বিএনপি-জামায়াত লক্ষ্মীপুরে সন্ত্রাসী বাহিনী গঠন করে প্রকাশ্যে খুনাখুনি, অস্ত্র আর লুটপাটের রাজনীতি করায় তারা জনসমর্থন হারিয়েছে। এখন গোলাগুলি নেই, মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে।

গোলাম ফারুক পিংকু আরো বলেন, ‘আওয়ামী লীগ প্রাচীন ও বৃহৎ রাজনৈতিক দল। আমি তিন বছর ধরে প্রতিটি ইউনিয়নে, প্রতিটি ওয়ার্ডে নেতাকর্মী ও জনগণের কাছে গিয়েছি। বিএনপি-জামায়াতের ভয়াবহ নির্যাতন-অত্যাচার এবং আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের কথা তুলে ধরেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে কিংবা যাকেই দলীয় মনোনয়ন দেবেন, সবাই ভেদাভেদ ভুলে এক হয়ে মাঠে কাজ করবেন। এতে লক্ষ্মীপুরের চারটি সংসদীয় আসনে নৌকার প্রার্থীরা জয়ী হবে।

পিংকু আরো বলেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের মতো বিএনপি-জামায়াত আন্দোলনের নামে সহিংসতা করলে তা কঠোরভাবে মোকাবিলা করা হবে। তাদের ছাড় দেওয়া হবে না। দলের নেতাকর্মীরা জনগণ ও প্রশাসনকে নিয়ে মাঠে থাকবে। যেখানে নৈরাজ্য হবে সেখানেই প্রতিরোধ করা হবে।

 

 

মন্তব্য