kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৭ জুন ২০১৯। ১৩ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

পাবনা

উন্নয়নের পক্ষে রায় যাবে

গোলাম ফারুক প্রিন্স
সাধারণ সম্পাদক, জেলা আওয়ামী লীগ

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উন্নয়নের পক্ষে রায় যাবে

কালের কণ্ঠ : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে আপনাদের দলীয় প্রস্তুতি কেমন?

গোলাম ফারুক প্রিন্স : পাবনার পাঁচটি আসনের প্রতিটি ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, থানায় আওয়ামী লীগের সব স্তরের নেতাকর্মী নির্বাচনের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত।

কালের কণ্ঠ : আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বেড়েছে বলে মনে করেন কি?

গোলাম ফারুক প্রিন্স : বিগত কয়েক বছরে পাবনা জেলায় বর্তমান সরকারের নেওয়া ব্যাপক উন্নয়নমুখী কাজের কারণে আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা অতীতের যেকোনো রেকর্ডকে ছাড়িয়ে গেছে।

কালের কণ্ঠ : দলের পক্ষ থেকে পাবনার ভোটারদের সামনে কোন কোন উন্নয়ন তুলে ধরবেন?

গোলাম ফারুক প্রিন্স : উন্নয়ন তো অনেক। বর্তমান সরকারের আমলে পাবনার ঈশ্বরদীতে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বাস্তবায়নের পথে, যা পাবনাকে সারা বিশ্বে পরিচিত করে তুলেছে। এর বাইরে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা মেডিক্যাল কলেজ, ঈশ্বরদীর মাজগ্রাম থেকে ঢালারচর পর্যন্ত রেলপথ, মেরিন একাডেমি, নগরবাড়ীতে বাফার দ্বিতীয় বৃহৎ সারের গোডাউন, মুজিব বাঁধের ওপরে সড়ক নির্মাণসহ বিভিন্ন জনপদের সড়ক ও বাঁধ নির্মাণ ও সংস্কার, বিভিন্ন উপজেলায় কলেজ সরকারীকরণ ইত্যাদি উন্নয়ন আজ দৃশ্যমান সবার কাছে। নির্বাচনী প্রচারণার সময় আমরা এসব উন্নয়ন জনগণের সামনে আবারও তুলে ধরব।

কালের কণ্ঠ : এবারের নির্বাচনে পাবনায় বিএনপি, জামায়াত বা জাতীয় পার্টি আওয়ামী লীগের জন্য কোনো ফ্যাক্টর হবে কি?

গোলাম ফারুক প্রিন্স : পাবনার প্রতিটি আসনেই আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক ভিত অত্যন্ত মজবুত। ফলে এবারের নির্বাচনে আমি বিএনপি, জামায়াত বা জাতীয় পার্টিকে কোনো ফ্যাক্টর মনে করছি না।

কালের কণ্ঠ : বিভিন্ন আসনে দলে তো বেশ কয়েকজন মনোনয়নপ্রত্যাশী রয়েছেন। বিষয়টিকে কিভাবে মূল্যায়ন করছেন?

গোলাম ফারুক প্রিন্স : আওয়ামী লীগ দেশের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দল। এখানে অনেক যোগ্য প্রার্থী আছেন। ফলে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু দল যাঁকে চূড়ান্ত মনোনয়ন দেবেন, সবাই দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে তাঁর জন্যই কাজ করবেন।

মন্তব্য