kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

গাইবান্ধা

আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত

অধ্যাপক ডা. মইনুল হাসান সাদিক
সভাপতি, জেলা বিএনপি

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত

কালের কণ্ঠ : জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য আপনাদের প্রস্তুতি কেমন?

অধ্যাপক ডা. মইনুল হাসান সাদিক : হামলা-মামলা, জেল-জুলুমসহ নানা কারণে বিএনপির নেতাকর্মীরা দীর্ঘদিন ঘরছাড়া। তাদের স্বাভাবিক চলাচলও নানাভাবে ব্যাহত হচ্ছে। তার পরও তৃণমূলের মানুষের কাছে সুশাসনের প্রতীক বিএনপি। সদস্য সংগ্রহ, নবায়নসহ সাংগঠনিক সব বিষয় সুচারুভাবে সম্পন্ন করা হয়েছে। কেন্দ্রের নির্দেশনা পেলে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছানোর জন্য বিএনপি নেতাকর্মীরা তৈরি। নির্বাচনমুখী দল হিসেবে আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত।

কালের কণ্ঠ : দলে কোনো মতবিরোধ আছে কি?

অধ্যাপক ডা. মইনুল হাসান সাদিক : একটি বড় দলে নেতৃত্বের সুস্থ প্রতিযোগিতা থাকতেই পারে। সেটিকে মতবিরোধ বা কোন্দল বলা সংগত নয়। জনগণ বিএনপিকে রাষ্ট্রক্ষমতায় দেখতে চায়। নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আবারও জনগণের সমর্থন নিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার ব্যাপারে একমত। আন্দোলন-সংগ্রামে বিএনপির নেতাকর্মীরা হাতে হাত রেখে ঐক্যবদ্ধ।

কালের কণ্ঠ : বিএনপি প্রার্থীদের জয় লাভের ব্যাপারে আপনি কতটুকু আশাবাদী?

অধ্যাপক ডা. মইনুল হাসান সাদিক : সুষ্ঠু পরিবেশ, সাধারণ মানুষ স্বাভাবিকভাবে ভোট দেওয়ার অধিকার পেলে বিএনপি প্রার্থীরা বিপুল ভোটে ও ব্যবধানে জয়লাভ করবে। এর বিপরীত পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে গণতন্ত্র তথা নির্বাচনের অগ্রযাত্রা ব্যাহত হবে।

কালের কণ্ঠ : জোটগত নির্বাচনের ব্যাপারে আপনার মতামত কী?

অধ্যাপক ডা. মইনুল হাসান সাদিক : এই বিষয়টি কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাস্তবায়িত হবে। তবে গাইবান্ধার পাঁচটি আসনেই বিএনপির নিবেদিতপ্রাণ প্রার্থীরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

কালের কণ্ঠ : প্রার্থিতা নিয়ে সংকট আছে কি?

অধ্যাপক ডা. মইনুল হাসান সাদিক : বড় দলে প্রার্থীর সংখ্যা বেশি হবেই। এটাই স্বাভাবিক। তবে হাইকমান্ড যোগ্যতর প্রার্থীকে মনোনয়ন দেবে বলেই আমার বিশ্বাস। এ ব্যাপারে এলাকাভিত্তিক জরিপ রয়েছে। আমরা নির্দ্বিধায় বিষয়টির জন্য কেন্দ্রের ওপর নির্ভর করব।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা