kalerkantho

শুক্রবার । ১১ আষাঢ় ১৪২৮। ২৫ জুন ২০২১। ১৩ জিলকদ ১৪৪২

অবসরপ্রাপ্তদের সব ভাতা-সুবিধা করমুক্ত

১ জুলাই ২০১৭ থেকে কার্যকর

আবুল কাশেম   

২৫ জুন, ২০১৭ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অবসরপ্রাপ্তদের সব ভাতা-সুবিধা করমুক্ত

ঈদের আগেই আরেকটি খুশির সংবাদ পেলেন সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক-বীমা, করপোরেশন, স্বশাসিত সংস্থা, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, বিচার বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সামরিক বাহিনীর সদস্যরা। অবসরকালে পাওয়া ছুটি নগদায়ন ভাতাসহ (লাম্প গ্র্যান্ট) সরকারি বেতন আদেশে উল্লেখিত সব ধরনের ভাতা ও সুবিধা আয়কর থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার এসংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনও জারি করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

এ প্রজ্ঞাপনের ফলে সামরিক-বেসামরিক মিলিয়ে প্রায় ২২ লাখ কর্মকর্তা-কর্মচারীর অবসরকালে পাওয়া সব ধরনের ভাতা ও সুবিধা আয়করমুক্ত। আগামী ১ জুলাই থেকে যাঁরা অবসরে যাবেন, তাঁদের সবাই এ সুবিধা পাবেন। সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অবসরকালে লাম্প গ্র্যান্ট ছাড়াও অর্জিত ছুটি, গ্র্যাচুইটি, বীমা ভাতা, চিকিৎসাসহ বিভিন্ন ভাতা ও সুবিধা পেয়ে থাকেন। ১ জুলাই থেকে এর কোনোটির ওপরই আয়কর প্রযোজ্য হবে না। 

২০১৫ সালের ১ জুলাই নতুন বেতন কাঠামো কার্যকর করার আগের দিন ৩০ জুন এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে অবসরকালে পাওয়া সরকারের সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবসরকালে পাওয়া লাম্প গ্র্যান্টসহ অন্যান্য ধরনের ভাতা ও সুবিধার ওপর আয়কর বসায় এনবিআর। এতে চাকরিজীবনের শেষ পর্যায়ে থাকা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। তাঁরা এ ধরনের ভাতাকে কর অব্যাহতি সুবিধা দেওয়ার দাবি তেলেন। এর পরিপ্রেক্ষিতেই এনবিআর দুই বছর আগে জারি করা প্রজ্ঞাপন রহিত করে অবসরকালে পাওয়া বিভিন্ন ভাতা ও সুবিধা আয়কর থেকে অব্যাহতি দিয়ে নতুন প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

তবে সরকারি বেতন আদেশভুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাকরিরত অবস্থায় পাওয়া মূল বেতন, উৎসব ভাতা ও বোনাসের ওপর আয়কর বহাল থাকছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও এনবিআর চেয়ারম্যান স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ‘সরকারি বেতন আদেশভুক্ত কর্মচারীদের সরকার কর্তৃক প্রদত্ত মূল বেতন, উৎসব ভাতা ও বোনাস, যে নামেই অভিহিত হোক না কেন, ব্যতীত অবসরকালে প্রদত্ত লাম্প গ্র্যান্টসহ সরকারি বেতন আদেশে উল্লিখিত অন্যান্য ভাতা ও সুবিধাদিকে প্রদেয় আয়কর হইতে এতদ্বারা অব্যাহতি প্রদান করিল।’

বিভিন্ন সেক্টরে কর্মরত সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতায় পার্থক্য থাকায় ‘চাকরি (বেতন ও ভাতাদি) আদেশ, ২০১৫’ জারি করার সময় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারের বিভিন্ন করপোরেশনসহ স্বশাসিত বডি ও রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আলাদা বেতন কাঠামো জারি করে সরকার। উভয় বেতন কাঠামোর আওতাভুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবসরকালে পাওয়া ভাতা ও সুবিধাকে কর অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান, পুলিশ, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্য, বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন যৌথ বাহিনীর জন্য পৃথক বেতন-ভাতা আদেশ জারি করে সরকার। এসব আদেশের আওতায় থাকা প্রত্যেক কর্মকর্তা-কর্মচারীর অবসরে পাওয়া ভাতা ও অন্যান্য সুবিধা কর অব্যাহতি পাবে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, এসব বেতন-ভাতা আদেশের বাইরে কোনো আইন, বিধি বা প্রবিধানের অধীন কোনো পদে নিয়োজিত থাকাকালে যেসব কর্মকর্তা-কর্মচারী সরাসরি সরকারি কোষাগার থেকে বেতন বা আর্থিক সুবিধা পাবেন, তাঁদের ক্ষেত্রেও এটি কার্যকর হবে।