kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ কার্তিক ১৪২৮। ২৬ অক্টোবর ২০২১। ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিচার বিভাগীয় সম্মেলন এবার দুই দিনব্যাপী

সমস্যার কথা তুলে ধরার সুযোগে খুশি বিচারকরা

আশরাফ-উল-আলম   

২৮ নভেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



দ্বিতীয় বছরে এসে জাতীয় বিচার বিভাগীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে দুই দিনব্যাপী। আগামী ২৪ ও ২৫ ডিসেম্বর ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র ও সুপ্রিম কোর্ট মিলনায়তনে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। গত বছর প্রথমবারের মতো সুপ্রিম কোর্টের তত্ত্বাবধানে এ সম্মেলন শুরু হয়। প্রথমবার এক দিনের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল।

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা (এস কে সিনহা) দেশে বিচার বিভাগীয় সম্মেলনের উদ্যোক্তা। এবার এক দিনের পরিবর্তে দুই দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্যোগও তিনি নিয়েছেন। ইতিমধ্যে সম্মেলনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে সুপ্রিম কোর্ট সূত্রে জানা গেছে। প্রধান বিচারপতি সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকতে সম্মতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গত ৬ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টের পক্ষে অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার মো. যাবিদ হোসেন বিচার বিভাগীয় সব কর্মকর্তাকে সম্মেলনের বিষয়ে অবহিত করেছেন। সুপ্রিম কোর্টের সহকারী রেজিস্ট্রার মো. ইসমাইল হোসেন স্বাক্ষরিত চিঠিতে আরো বলা হয়েছে, বিচার বিভাগ ডিজিটালাইজেশন এবং কার্যকর আদালত প্রশাসন ও মামলা ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে মামলাজট সহনীয় পর্যায়ে কমানোর লক্ষ্যে বিদ্যমান সমস্যা, সম্ভাবনা ও সমাধানের উপায় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও দিকনির্দেশনার উদ্দেশ্যে এই বিচার বিভাগীয় সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

সুপ্রিম কোর্ট সূত্রে আরো জানা গেছে, সম্মেলনের প্রথম দিন ২৪ ডিসেম্বর সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত বিচার বিভাগীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম দিন প্রধান অতিথি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিশেষ অতিথি হিসেবে আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক ও ভারতের প্রধান বিচারপতি উপস্থিত থাকবেন। প্রথম দিন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিরা থাকবেন।

২৫ ডিসেম্বর সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের বিভিন্ন অনুষ্ঠান সুপ্রিম কোর্ট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে। এদিনও সকাল সাড়ে ৮টা থেকে বিকেল পৌনে ৫টা পর্যন্ত সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানগুলোতে বিচারকদের জন্য সুনির্দিষ্ট বিষয়ে আলোচনা হবে। এই দিন সব জেলা ও দায়রা জজ, মহানগর দায়রা জজ, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে কর্মরত বিচারক, ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালের বিচারক, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটসহ নিম্ন আদালতের সব বিচারকের উপস্থিত থাকতে অনুরোধ করে ইতিমধ্যে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

সম্মেলন বাস্তবায়ন করতে কমিটি : দুই দিনব্যাপী বিচার বিভাগীয় সম্মেলন বাস্তবায়ন করতে ইতিমধ্যে কমিটি গঠন করেছেন সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল সৈয়দ আমিনুল ইসলামকে সভাপতি এবং আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের দুই রেজিস্ট্রারসহ বিভিন্ন শাখার অতিরিক্ত ও ডেপুটি রেজিস্ট্রাররা কমিটিতে রয়েছেন। রয়েছে আটটি উপকমিটি।

এবারের সম্মেলনের দিকে তাকিয়ে বিচারকরা : গত বছর প্রথম এই ধরনের কোনো বিচার বিভাগীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। বর্তমান প্রধান বিচারপতিই এ সম্মেলনের উদ্যোক্তা। এর আগে প্রতিবছর বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের সংগঠন ‘বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন’ বার্ষিক সাধারণ সম্মেলনের আয়োজন করত। কিন্তু বিভিন্ন কারণে পাঁচ বছর ধরে সংগঠনটির কর্ম তৎপরতা স্থবির হয়ে পড়ায় বিচারকদের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়নি।

বিচার বিভাগের নানা সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর দিকে তাকিয়ে আছেন বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তারা। যদি প্রধানমন্ত্রী সম্মেলনে থাকেন, তাহলে বিচারকরা আশা করছেন নানা সমস্যা সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী জানবেন। আর সমাধানে দিকনির্দেশনাও দেবেন তিনি।

ঢাকার একজন বিচারক নাম প্রকাশ না করার শর্তে কালের কণ্ঠকে জানান, এ ধরনের সম্মেলনে তাঁরা খুশি। গত বছর এক দিনের সম্মেলনে যেসব আলোচনা হয়েছিল, তা ফলপ্রসূ হয়েছে। তিনি জানান, এবারের সম্মেলনে গত দুই বছরে বিচার বিভাগীয় বিভিন্ন কাজের ডকুমেন্টারিও প্রদর্শিত হবে।



সাতদিনের সেরা