kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

অ্যামনেস্টির বিবৃতি

পেট্রলবোমা হামলার যৌক্তিকতা নেই

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ মার্চ, ২০১৫ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পেট্রলবোমা হামলার যৌক্তিকতা নেই

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের ডাকা টানা অবরোধ চলাকালে পেট্রলবোমা হামলা চালানোর কোনো যৌক্তিকতা নেই বলে মন্তব্য করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। একই সঙ্গে পুলিশি অভিযানে নিহত হওয়ার ঘটনাগুলোতেও উদ্বেগ প্রকাশ করে সংস্থাটি। তারা পেট্রলবোমা হামলার ঘটনাগুলোর তদন্ত এবং দায়ীদের সুষ্ঠু বিচারের আওতায় আনতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

গত ৫ মার্চ অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানানো হয়। বিবৃতিতে সংস্থাটির বাংলাদেশবিষয়ক গবেষক আব্বাস ফয়েজ বলেন, ভয়াবহ পেট্রলবোমা হামলার কোনো যৌক্তিকতা নেই। কেননা ক্রমাগত এর শিকার হচ্ছে সাধারণ মানুষ। এসব ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করে দায়ীদের বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো উচিত।

বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, রাজনৈতিকভাবে বাংলাদেশ প্রান্তঃসীমায় অবস্থান করছে। আর সহিংসতা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ার ঝুঁকি সৃষ্টি হয়েছে। এমনটা যেন না হয় তা নিশ্চিত করার দায়িত্ব রাজনৈতিক অঙ্গনের সব পক্ষের নেতাদের। তাদের দায়িত্বশীলতার সঙ্গে পদক্ষেপ নিতে হবে এবং তাদের সমর্থকদের জনসমক্ষে আহ্বান জানাতে হবে তারা যেন মানবাধিকতার লঙ্ঘনে সম্পৃক্ত না হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, জানুয়ারি থেকে ঢাকা ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলোর রাজপথে সরকার ও বিরোধী সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতির বেশ অবনতি ঘটেছে।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়, গত ৫ জানুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসন দেশব্যাপী অবরোধ ডাকার পর থেকে পেট্রলবোমা হামলা চলে আসছে। বাস ও অন্য যানবাহনে পেট্রলবোমা হামলায় ৫০ জনের বেশি সাধারণ মানুষ পুড়ে মারা গেছে। জীবন্ত পুড়ে মারা গেছে কমপক্ষে সাতজন। দগ্ধ হয়ে শতাধিক মানুষ এখনো যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। এক হাজার তিন শর বেশি বাস ও অন্য যানবাহনে হামলা চালানো হয়েছে। সর্বশেষ গত ৪ মার্চ রাতে কিশোরগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও চট্টগ্রামে পেট্রলবোমা হামলায় ২০ জন দগ্ধ হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছে, বিএনপি সমর্থকরাই এ হামলা চালিয়েছে। তবে বিএনপি এর সঙ্গে জড়িত নয় বলে দাবি করছে। এ পরিস্থিতি থেকে বের হতে বিএনপিসহ সব দলের নেতাদের দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেওয়ার আহ্বান জানান আব্বাস ফয়েজ।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা