kalerkantho

শনিবার । ২৬ নভেম্বর ২০২২ । ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

দৈনন্দিন ইসলামী প্রশ্ন-উত্তর

সমাধান : ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বাংলাদেশ, বসুন্ধরা, ঢাকা

৩ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মৃতের পক্ষ থেকে কাজা নামাজ আদায় করা

প্রশ্ন : এক ব্যক্তি শরীর অসুস্থ থাকাকালীন নিয়মিত ফরজ নামাজ জামাতে আদায় করতেন। কিন্তু হঠাৎ বড় রোগে আক্রান্ত হওয়ায় বসে নামাজ পড়াও তাঁর জন্য সম্ভব ছিল না। অতঃপর এভাবে দুই মাস যাওয়ার পর মারা যান। প্রশ্ন হলো, ওই ব্যক্তির সন্তানরা তাঁর কাজা নামাজগুলো আদায় করে দিলে তাঁর পক্ষ থেকে আদায় হয়ে যাবে কি? এ ব্যাপারে শরীয়তের বিধান কী?

আবুল হাশেম, বাংলামোটর

উত্তর : ইসলামের দৃষ্টিতে কেউ কারো ইবাদত আদায় করার বিধান নেই।

বিজ্ঞাপন

নামাজ-রোজা যেহেতু শারীরিক ইবাদত, তাই মৃতের সন্তান বা অন্য কেউ তার পক্ষ থেকে নামাজ-রোজা করার সুযোগ নেই। বরং সে মৃত্যুকালে অসিয়ত করে গেলে তাঁর সম্পদের এক-তৃতীয়াংশ থেকে কাফফারা আদায় করতে হবে। অসিয়ত না করলেও যদি তাঁর পক্ষ থেকে কেউ স্বেচ্ছায় কাফফারা আদায় করে দেয়, তাহলে আদায় হয়ে যাওয়ার আশা করা যায়। (আল বাহরুর রায়েক : ২/৯০-৯১, হিন্দিয়া : ১/১২৫)

 

শ্বাসকষ্ট রোগীর জন্য তায়াম্মুম

প্রশ্ন : শ্বাসকষ্টে ভুগছে—এমন লোক যদি রাতে ফরজ গোসল করে তাহলে তার রোগ বেড়ে যায় এবং এতে খুব কষ্ট হয়, সে তায়াম্মুম করতে পারবে কি না? কোন ধরনের ওজর হলে গোসলের পরিবর্তে তায়াম্মুম করা যাবে?

ইয়াকুব আলী, সাভার

উত্তর : প্রশ্নে বর্ণিত শ্বাসকষ্টে ভুগছে এমন ব্যক্তি রাতে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ফরজ গোসল করার দ্বারা যদি তার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ার প্রবল ধারণা হয় তাহলে গরম পানি দ্বারা গোসল করে নেবে। যদি তাতেও রোগ বেড়ে যাওয়ার প্রবল ধারণা হয় তাহলে (অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শক্রমে) তার জন্য তায়াম্মুম করা বৈধ হবে। (হিন্দিয়া : ১/২৮, রদ্দুল মুহতার : ১/২৩৩, ফাতাওয়ায়ে দারুল উলুম : ১/২৪৪, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৩/৭৪)

 



সাতদিনের সেরা