kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১১ আগস্ট ২০২২ । ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১২ মহররম ১৪৪৪

বাইসাইকেলে যাত্রা শুরু

যেভাবে মক্কায় পৌঁছলেন আফগান হজযাত্রী

মুহাম্মাদ হেদায়াতুল্লাহ   

১ জুলাই, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আফগানিস্তানের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের হজযাত্রী নুর মুহাম্মদ (৪৮)। গত মাসে হজ পালনে মক্কার উদ্দেশে বাইসাইকেলে যাত্রা শুরু করেছিলেন। গতকাল বুধবার (২৯ জুন) নানা অপ্রত্যাশিত ঘটনার পর তিনি সৌদি আরব এসে পৌঁছান। সৌদি সংবাদমাধ্যম আরব নিউজ সূত্রে জানা যায়, সাইকেলে ছয় হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে এই বছর হজ পালনের পরিকল্পনা ছিল নুর মুহাম্মদের।

বিজ্ঞাপন

গত মে মাসের শুরুতে গজনি প্রদেশের কারাবাগ জেলার লায়েক গ্রাম থেকে সাইকেলে যাত্রা শুরু করেন তিনি। পথিমধ্যে এক আফগান আলেম শায়খ হাম্মাসি তাঁকে বিমানের টিকিট দেওয়ার প্রস্তাব দিলেও তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন। নিজ উদ্যোগেই হজের পবিত্র ভ্রমণের ইচ্ছা ছিল তাঁর। কিন্তু সাইকেলে করে যাওয়ার বাসনা আর পূরণ হয়নি নুরের। নিজ শহর ছাড়ার তিন সপ্তাহ পরই ইরানে গিয়ে আটকা পড়েন। ইরাকের সীমান্ত শহর খোররামশাহর পাড়ি দিতে তাঁর ভিসার প্রয়োজন ছিল। কিন্তু বন্ধুদের আশ্বাসে নানাভাবে চেষ্টা করেও ভিসা পাচ্ছিলেন না। অবশেষে বাধ্য হয়ে নুর মুহাম্মদ আফগানিস্তানের সেই আলেমের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তিনি ইরানে অবস্থানরত পরিচিত ব্যবসায়ীর মাধ্যমে তাঁর কাবুলে ফেরার ব্যবস্থা করেন।

কাবুলে ফিরলেও নুরের হজের স্বপ্ন হারিয়ে যায়নি। সেখানে হজ প্রস্তুতি কোর্স শুরু করলে সেখানকার কর্মকর্তারা তাঁর হজযাত্রার ব্যবস্থা করেন। জানা যায়, হজের সফর শুরুর কয়েক দিন আগেই জরুরি ভিত্তিতে তাঁর পাসপোর্ট করা হয়। এরপর আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিরাজউদ্দিন হাক্কানি ও তাঁর ঘনিষ্ঠ সহযোগী আনাস হাক্কানির পক্ষ থেকে তাঁর ফ্লাইটের ব্যবস্থা করা হয়। সব জরুরি কাগজপত্র প্রস্তুতির পর গত মঙ্গলবার (২৮ জুন) তিনি জেদ্দার উদ্দেশে কাবুল ত্যাগ করেন।

গত ২২ জুন আফগানিস্তানের পাকতিয়া প্রদেশের ভয়াবহ ভূমিকম্পের কয়েক দিন পরই নুর মুহাম্মদ হজযাত্রা শুরু করেন। মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় বাড়িঘর ও স্বজন হারানো পরিবার-পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি মক্কায় পৌঁছে মহান আল্লাহর কাছে হতাহতদের জন্য দোয়া করব। আল্লাহর কাছে প্রত্যশা, তিনি আমাদের দেশের সব সমস্যার সমাধান করবেন। ’

সূত্র : আরব নিউজ

 

 



সাতদিনের সেরা