kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

উত্তম চরিত্র

তথ্য প্রচারে সতর্কতা আবশ্যক

মাইমুনা আক্তার   

২৩ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এখন প্রযুক্তির যুগ, প্রযুক্তি ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনো কিছু দিলেই তা অনেক ক্ষেত্রে ভাইরাল হয়ে যায়।

ফলে সমাজে ও রাষ্ট্রে বিভিন্ন রকম অস্থিরতা, কোনো কোনো ক্ষেত্রে দাঙ্গারও সৃষ্টি হয়। এ কারণে তথ্য প্রচার ও বিশ্বাসে সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরি। যেকোনো তথ্য পেলেই তা ভালোভাবে যাচাই না করে বিশ্বাস করা উচিত নয়, শেয়ার করা তো অনেক পরের বিষয়।

বিজ্ঞাপন

পবিত্র কোরআনে মহান আল্লাহ বলেন, ‘হে মুমিনগণ, কোনো ফাসেক যদি তোমাদের কাছে কোনো সংবাদ নিয়ে আসে, তবে ভালোভাবে যাচাই করে দেখবে, যাতে তোমরা অজ্ঞতাবশত কোনো সম্প্রদায়ের ক্ষতি করে না বসো। ফলে নিজেদের কৃতকর্মের কারণে তোমাদের অনুতপ্ত হতে হয়। ’  (সুরা : হুজুরাত, আয়াত : ৬)

এখানে ফাসেকের খবর ভালোভাবে যাচাই করতে বলা হয়েছে। কারণ সে অসত্য খবরও দিতে পারে। তা যাচাই না করা হলে মিথ্যা খবরের ফাঁদে পড়ে কারো ক্ষতি করা হয়ে যেতে পারে। ফলে কৃতকর্মের জন্য নিজেকেই অনুতপ্ত হতে হবে। অনলাইনে যারা বিভিন্ন খবর প্রচার করে, এদের বেশির ভাগ মানুষকেই আমরা চিনি না, ফলে তাদের খবরের ব্যাপারে তো আরো বেশি সতর্ক থাকা উচিত।

যাচাই না করে খবর প্রচার করে নিজের মিথ্যাবাদী হওয়ার আশঙ্কাই বেশি। হাদিস শরিফে এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (সা.) বলেছেন, কোনো ব্যক্তির মিথ্যাবাদী সাব্যস্ত হওয়ার জন্য এতটুকুই যথেষ্ট যে সে কোনো কথা শোনামাত্রই (যাচাই না করে) বলে বেড়ায়। (আবু দাউদ, হাদিস : ৪৯৯২)

তাই কোনো তথ্য প্রচারের আগে অবশ্যই তা যাচাই করে নেওয়া মুমিনের জন্য আবশ্যক। মহান আল্লাহ সবাইকে তাওফিক দান করুন। আমিন।

 

 



সাতদিনের সেরা