kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

প্রচলিত ভুলের সংশোধন : আবদুল কাইয়ুম রাজ, কালশি, মিরপুর, ঢাকা

দোয়ার জন্য মুকাব্বির নির্ধারণ করা

৭ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রশ্ন : আমাদের গ্রামের মসজিদে শুক্রবার মসজিদ পূর্ণ হয়ে সামনে খোলা জায়গায়ও মানুষ নামাজে দাঁড়ায়। মসজিদে সাউন্ড সিস্টেম না থাকায় বাইরে দাঁড়ানো লোকদের জন্য মুকাব্বির (যিনি ইমামের সঙ্গে সঙ্গে তাকবির উচ্চারণ করেন, যাতে পেছনের লোকেরা ইমামকে অনুসরণ করতে পারে) নির্ধারণ করার প্রয়োজন হয়। নামাজের সময় যাঁরা তাকবির উচ্চারণ করেন তাঁরা দোয়ার সময়ও মুকাব্বিরের ভূমিকা পালন করেন। দোয়ার সময় মুকাব্বির নির্ধারণ করা কি বৈধ?

 

উত্তর : ইসলামী শরিয়ত নামাজের সময় মুকাব্বির নির্ধারণের অনুমতি দিয়েছে বিশেষ প্রয়োজনে।

বিজ্ঞাপন

দোয়ার ক্ষেত্রে সেই প্রয়োজনগুলো নেই। তাই দোয়ার সময় কারো মুকাব্বির হওয়ার প্রয়োজন নেই। তা হলো, নামাজে ইমামের অনুসরণ আবশ্যক; কিন্তু দোয়ার ক্ষেত্রে ইমামের অনুসরণ করা আবশ্যক নয়, তা ব্যক্তিগতভাবেও করা যায়। কেউ চাইলে ইমামের আগে বা আবার ইমাম দোয়া শেষ করার পর দোয়া শুরু করতে পারেন। সাধারণত প্রতিটি জামাতে কিছু মানুষ মাসবুক (যারা শুরু থেকে অংশ গ্রহণ করতে পারেনি) হয়। ইমাম সালাম ফেরানোর পর তারা অবশিষ্ট নামাজ শেষ করেন। এ ক্ষেত্রে উচ্চ স্বরে বা সম্মিলিতভাবে আওয়াজ করলে তাদের নামাজের সমস্যা হতে পারে, যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। সুতরাং দোয়ার সময় কারো মুকাব্বির না হওয়াই উত্তম।

     গ্রন্থনায় : মুফতি আবদুল্লাহ নুর

 

 



সাতদিনের সেরা