kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ২৬ মে ২০২২ । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৪ শাওয়াল ১৪৪

দৈনন্দিন ইসলামী প্রশ্ন-উত্তর

সমাধান : ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বাংলাদেশ, বসুন্ধরা, ঢাকা   

১৯ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বহুতল মসজিদের ছাদে ফাঁকা রাখার বিধান

প্রশ্ন : এখন দেশে অনেক বহুতল মসজিদ গড়ে উঠছে। কোনো কোনো মসজিদে দেখি ইমাম বরাবর, আবার কোথাও মাঝখানে ছাদে ফাঁকা রাখা হয়। আবার কোথাও ফাঁকা রাখা হয় না। এ বিষয়ে ইসলামের বক্তব্য কী?

ইসমাঈল, ফার্মগেট

উত্তর : বহুতল মসজিদের ছাদে ফাঁকা রাখা মূলত মুক্তাদিরা ইমামের অবস্থা সম্পর্কে অবগতি লাভ করার জন্য।

বিজ্ঞাপন

সুতরাং অন্য কোনো উপায়ে যথা—মাইক, বা মুকাব্বির ইত্যাদির মাধ্যমে ইমাম সাহেবের অবস্থা সম্পর্কে অবগতি লাভ করার ব্যবস্থা থাকলে ফাঁকা না রাখলেও অসুবিধা নেই। (রাদ্দুল মুহতার : ১/৫৮১, তাতারখানিয়া : ১/৪৪৪, নেহায়াতুল আহকাম ফি মারিফাতিল আহকাম : ২/১২০)

 

মাগরিব-এশা একাকী পড়ার সময় জোরে কিরাত পড়া

প্রশ্ন : আমার এক চাচাকে দেখেছি একাকী মাগরিবের নামাজ আদায়কালে জোরে কিরাত পড়ছেন। মাগরিব-এশা বা ফজরের নামাজ একাকী পড়লে কি জোরে কিরাত পড়া যায়? পড়লে নামাজের কোনো ক্ষতি হবে? 

তাওহিদুর রহমান, নোয়াখালী

উত্তর : জামাতে নামাজ পড়ার ক্ষেত্রে যেসব নামাজে কেরাত জোরে পড়া হয়, সেই নামাজগুলো একাকী পড়ার সময় কিরাত আস্তে ও জোরে, উভয় পদ্ধতিতেই পড়া যায়। তবে অধিক জোরে না পড়ে স্বাভাবিক আওয়াজে পড়বে। আর ওই নামাজ ওয়াক্তের পরে কাজা করার সময় কিরাত আস্তে পড়া আবশ্যক। (আদ্দুররুল মুখতার : ১/২৫১)

 

বিতরের নামাজের দোয়া কুনুত মুখস্থ না থাকলে

প্রশ্ন : আমার দোয়া কুনুত মুখস্থ নেই। এখন বিতর নামাজ কিভাবে আদায় করব। বিতরের নামাজের দোয়া কুনুত মুখস্থ না থাকলে অন্য কোনো দোয়া পড়া যাবে?

নুসরাত বিনতে আরিফ, গুলশান

উত্তর : দোয়া কুনুত মুখস্থ না থাকলে অন্য যেকোনো মাসনুন (সুন্নাহসম্মত) দোয়া পড়া যাবে। তবে নির্দিষ্ট দোয়াটি পড়া গুরুত্বপূর্ণ সুন্নত হওয়ায় তা অতিসত্ত্বর শিখে নেওয়া উচিত। (রদ্দুল মুহতার : ২/৫৩৫)

 

বদলি হজ করলে নিজের ফরজ

হজ আদায় হয়?

প্রশ্ন: আমার ওপর হজ ফরজ; কিন্তু আমি এখনো হজ করতে পারিনি। আমার মা বলছেন আগে আমার মরহুম বাবার বদলি হজ আদায় করতে। বদলি হজ করার ক্ষেত্রে নিজের ওপর হজ ফরজ থাকলে বদলি হজ আদায় হবে কি?

মাহবুব, চিটাগাং রোড

উত্তর : যার ওপর হজ ফরজ, এমন ব্যক্তি নিজের হজ আদায় না করে অন্যের বদলি হজ করলে, তা আদায় হলেও মাকরুহে তাহরিমি বলে বিবেচিত হবে। (রদ্দুল মুহতার : ৪/২৫, আহসানুল ফাতাওয়া : ৪/৫১২)



সাতদিনের সেরা