kalerkantho

শনিবার ।  ২১ মে ২০২২ । ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩  

প্রচলিত ভুল সংশোধন : তারিফ মুহাম্মদ, মুরাদনগর, কুমিল্লা

উম্মতের হিসাব নবীজি (সা.)-এর ওপর ন্যস্ত

১৩ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রশ্ন : আমাদের অঞ্চলের জনৈক পীর বলে থাকেন মিরাজের রাতে নবীজি (সা.) আল্লাহর কাছে উম্মতে মুহাম্মদির হিসাব তাঁর হাতে ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ করেন। তখন আল্লাহ উম্মতে মুহাম্মদির জন্য সাধারণ ক্ষমা করেন। তার এ কথার ভিত্তি কি?

উত্তর : প্রকৃতপক্ষে এই কথার কোনো ভিত্তি নেই। ইসলামের গ্রহণযোগ্য কোনো উৎস তা খুঁজে পাওয়া যায় না।

বিজ্ঞাপন

এ ক্ষেত্রে একটি বানোয়াট কথা হাদিস হিসেবে প্রচার করা হয়ে থাকে। তা হলো—‘মিরাজের রাতে রাসুলুল্লাহ (সা.) আল্লাহর কাছে আবেদন করেন যে, আমার উম্মতের হিসাব আমার ওপর ছেড়ে দিন, যাতে তারা অন্য উম্মতের সামনে লজ্জিত না হয়। আল্লাহ বলেন, না। এরা আমার বিশিষ্ট বান্দা। তাদের ভুল-ত্রুটি আপনাকেও জানাতে চাই না। এরপর নবীজি (সা.) বলেন, আমার গুনাহগার উম্মতের কি হবে? আল্লাহ বলেন, যখন আমি দয়ালু ও অনুগ্রহশীল এবং আপনি সুপারিশকারী তখন ভয়ের কী আছে?’ (আল-লালিয়িল মাসনুআ ফিল-আহাদিসিল মাওদুআ, পৃষ্ঠা ১৭৯)

উল্লিখিত বক্তব্যটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। বরং এ ক্ষেত্রে বিশুদ্ধ হাদিস হলো, নবীজি (সা.) বলেন, ‘হে কুরাইশ! তোমরা নিজেদের বাঁচানোর চেষ্টা কোরো। আল্লাহর কাছে আমি তোমাদের কোনো কাজে আসব না। হে বনু আব্দে মানাফ! আল্লাহর কাছে আমি তোমাদের কোনো উপকারে আসব না। হে সাফিয়্যা (নবীজির ফুফু) আল্লাহর কাছে আমি তোমাদের কোনো উপকারে আসব না। হে ফাতেমা বিনতে মুহাম্মদ! সম্পদ চাইলে বোলো, কিন্তু আল্লাহর ব্যাপারে আমি তোমার কোনো উপকারে আসব না। ’ (সহিহ বুখারি, হাদিস : ৪৭৭১)

     গ্রন্থনা : মুফতি আবদুল্লাহ নুর



সাতদিনের সেরা