kalerkantho

শনিবার । ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৪ ডিসেম্বর ২০২১। ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

নামাজে সাহু সিজদার নিয়ম

সাআদ তাশফিন   

২৫ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘সাহু সিজদা’ ইসলামের একটি গুরুত্বপূর্ণ পরিভাষা, যা ইসলামের পঞ্চস্তম্ভের অন্যতম স্তম্ভ নামাজের সঙ্গে সম্পর্কিত। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না যে কখন আমাদের জন্য সাহু সিজদা দেওয়া ওয়াজিব হয়। অথবা কোন ধরনের ভুলের কারণে সাহু সিজদা ওয়াজিব হয়ে যায়। আজ আমরা আলোচনা করব সাহু সিজদা নিয়ে।

সাহু সিজদা কাকে বলে

নামাজে কিছু বিষয় আছে, যা ভুলক্রমে হয়ে গেলে তার ক্ষতিপূরণ হিসেবে নামাজ শেষে দুটি অতিরিক্ত সিজদা আদায় করতে হয়, এ সিজদাকে সাহু সিজদা বলে। ইসলামী দৃষ্টিকোণ থেকে এটি ওয়াজিব।

ইমরান ইবনে হুসাইন (রা.) থেকে বর্ণিত, নবী (সা.) তাদের নিয়ে নামাজ আদায় করলেন। তিনি (নামাজে) ভুল করলেন, তারপর দুটি সিজদা করলেন, তারপর তাশাহুদ পাঠ করলেন, তারপর সালাম ফেরালেন। (তিরমিজি, হাদিস : ৩৯৫)

সাওবান (রা.) থেকে বর্ণিত, নবী (সা.) বলেছেন, নামাজের যেকোনো ভুলের জন্য সালাম ফিরানোর পর দুটি সিজদা করতে হয়। (আবু দাউদ, হাদিস : ১০৩৮)

এখানে যেকোনো ভুল বলতে সুন্নত ও মুস্তাহাবের ভুলের কথা বলা হয়নি। বরং নামাজের কোনো ফরজ ভুলক্রমে নির্ধারিত সময়ের পূর্বে বা পরে আদায় করা, এক ফরজ একাধিকবার আদায় করা, নামাজের কোনো ওয়াজিব ছুটে যাওয়া বা তা আদায়কালে কোনো পরিবর্তন অথবা বিলম্ব করা ইত্যাদি বোঝানো হয়েছে। (হিন্দিয়া : ১/২২৬)

সাহু সিজদার নিয়ম

হানাফি মাজহাব মতে, সাহু সিজদা করার পদ্ধতি হলো, নামাজের শেষ রাকাতে তাশাহুদ পড়ে শুধু ডানদিকে সালাম ফিরানোর পর তাকবির বলে যথারীতি দুটি সিজদা আদায় করবে। এরপর বসে পুনরায় তাশাহুদ, দরুদ ও  দোয়া পাঠ করে দুই সালামের মাধ্যমে নামাজ শেষ করবে। (ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৪/১৭০)

মহান আল্লাহ আমাদের সবাইকে ইসলামের পরিভাষাগুলো সঠিকভাবে জানার তাওফিক দান করুন।

 



সাতদিনের সেরা