kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

৫৫ দেশে ইসলাম প্রচারকারী তুর্কি আলেমের ইন্তেকাল

মুহাম্মদ হেদায়াতুল্লাহ   

১ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৫৫ দেশে ইসলাম প্রচারকারী তুর্কি আলেমের ইন্তেকাল

বিখ্যাত ইসলাম প্রচারক শায়খ নেয়ামাতুল্লাহ তুর্কি ইন্তেকাল করেছেন। ইসলামের প্রচার-প্রসারে তিনি পৃথিবীর আনাচকানাচে ঘুরে বেরিয়েছেন। গতকাল শুক্রবার তুরস্কের রাজধানী ইস্তাম্বুলে তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স ছিল প্রায় ৯০ বছর।

শায়খ নেয়ামাতুল্লাহ তুর্কি ছিলেন বিংশ শতাব্দীর একজন প্রাজ্ঞ আলেম ও দায়ি। উসমানি সাম্রাজ্যের শেষ সুলতান আবদুল হামিদের শাসনামলে বহু আলেমের কাছে তিনি শিক্ষা অর্জন করেন। তিনি পবিত্র মদিনায় ১৫ বছর মসজিদের ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। মক্কার জাবালে হেরা প্রান্তরের আন নুর মসজিদের ইমাম হিসেবে ১৫ বছর দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে তিনি ইস্তাম্বুলের বিখ্যাত সুলতান আহমদ মসজিদসহ বহু মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

নানা শ্রেণি ও পেশার মানুষের কাছে বিচিত্র পদ্ধতিতে ইসলামের সৌন্দর্য তুলে ধরতেন তিনি। ইউরোপ ও এশিয়ার ৫০টিরও বেশি দেশে তিনি ইসলাম প্রসারে সফর করেছেন। থাইল্যান্ড, জার্মানি, কোরিয়ার মদের বার থেকে অসংখ্য মদ্যপ লোককে মসজিদের আঙিনায় নিয়ে আসেন তিনি। মানুষের কাছে সহজভাবে হাসিমাখা মুখে ইসলামের কথা বর্ণনা করা ছিল তুর্কি এই আলেমের অন্যতম বৈশিষ্ট্য।

১৯৮১ সালে চীন সরকারের অনুমতিক্রমে দেশটিতে এক হাজারের বেশি পবিত্র কোরআনের কপি পাঠিয়েছেন। তা ছাড়া সাইবেরিয়াসহ রাশিয়ার বিভিন্ন এলাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রার মধ্যে শুধু সাদা জামা পরে ইসলামের দাওয়াত দিয়েছেন। সাদা জামা ছিল তাঁর বিশেষ নিদর্শনের মতো। কেননা সর্বনিম্ন মাত্রার মতো সর্বোচ্চ তাপমাত্রার মধ্যেও তিনি সাদা জামা পরে থাকতেন।

শায়খ নেয়ামাতুল্লাহ জাপানে ১৫ বছর অবস্থান করেন। এ সময় রাজধানী টোকিওতে ইসলামী শিক্ষা ও সংস্কৃতি প্রসারে একটি ইসলামিক সেন্টার প্রতিষ্ঠা করেন। জাপান, কোরিয়া, ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার লোক তাঁর হাতে ইসলাম গ্রহণ করেছে।        সূত্র : আল মুজাতামা



সাতদিনের সেরা