kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

নবীর দুশমন উবাইয়ের পরিণতি

মুফতি তাজুল ইসলাম   

৩০ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



উবাই ইবনে খালাফ উমাইয়ার ভাই। উকবা ইবনে আবু মুঈতের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব ছিল। উকবা উবাইয়ের কথামতো রাসুল (সা.)-এর ওপর থুথু নিক্ষেপ করেছিল। উবাই ইবনে খালাফ নিজে একবার মরা-পচা হাড্ডি চূর্ণ করে রাসুল (সা.)-এর কাছে গিয়ে তাঁর মুখের দিকে ফুঁ দিয়ে উড়িয়ে দেয়। যাতে তাঁর মুখ ভর্তি হয়ে যায় এবং দুর্গন্ধে বমি হওয়ার উপক্রম হয়। (সিরাতে ইবনে হিশাম : ১/৩৬১-৩৬২)

উবাই ইবনে খালফের অভ্যাস ছিল, সে রাসুল (সা.)-কে দেখলেই অকথ্য ভাষায় গালাগাল করত এবং হত্যার হুমকি দিত। নবী করিম (সা.) মক্কায় থাকাকালে দেখা হলে সে গর্বভরে বলত, হে মুহাম্মদ, আমার কাছে ‘আউদ’ নামের একটি ঘোড়া আছে; ওকে আমি প্রতিদিন তিন ‘সা’ (সাড়ে সাত কিলোগ্রাম) খাবার খাওয়াচ্ছি। সেই ঘোড়ার পিঠে বসে একদিন আপনাকে হত্যা করব। জবাবে রাসুল (সা.) বলতেন, উল্টাও হতে পারে। ইনশাআল্লাহ, আমিই তোমাকে হত্যা করব। (আর-রাহিকুল মাখতুম, পৃষ্ঠা ৩০৪)

রাসুল (সা.) ওহুদের যুদ্ধে ময়দানে পৌঁছার পর উবাই ইবনে খালাফ এ কথা বলে সামনে অগ্রসর হলো যে মুহাম্মদ কোথায়? হয়তো আমি থাকব, নতুবা তিনি থাকবেন। সাহাবিরা রাসুল (সা.)-কে বলেন, হে আল্লাহর রাসুল, আমরা কি তার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ব? নবী করিম (সা.) বলেন, ওকে আসতে দাও। এই দুর্বৃত্ত কাছে এলে রাসুল (সা.) হারেস ইবনে সাম্মার (রা.)-এর কাছ থেকে ছোট একটি বর্শা নিয়ে তার দিকে এগিয়ে গেলেন। এটা ছিল তেমন, যেমন গায়ে মাছি বসলে উট একটুখানি ঝাঁকুনি দেয়, আর এতে মাছি উড়ে যায়। রাসুল (সা.) এরপর উবাইয়ের মুখোমুখি হলেন, ইবনে খালাফের শিরস্ত্রাণ ও বর্মের মাঝামাঝি একটুখানি জায়গা (গলার কাছে) খালি ছিল। নবী করিম (সা.) সেই স্থান লক্ষ্য করে হাতের বর্শা নিক্ষেপ করলেন।

এতে উবাই ঘোড়া থেকে পড়ে যেতে যেতে নিজেকে সামলে নিল এবং তার মিত্রদের কাছে ফিরে গেল। তার গলার কাছে সামান্য কেটে গিয়েছিল বটে; কিন্তু রক্ত বের হয়নি। আঘাতও তেমন ছিল না। তবু সে চিৎকার করে বলতে লাগল, আল্লাহর শপথ! মুহাম্মদ আমাকে হত্যা করেছেন। লোকেরা তাকে বলল, কী বাজে বকছ? তোমার আঘাত তো তেমন গুরুতর নয়। গলায় সামান্য আঁচড় লাগার মতো দেখা যাচ্ছে। উবাই বলল, মুহাম্মদ মক্কায় আমাকে বলেছিলেন, আমি তোমাকে হত্যা করব। কাজেই আল্লাহর শপথ! আমার প্রাণ চলে যাবে। (জাদুল মাআদ : ২/০৭)

সে গাভির মতো চিৎকার করে বলত, সেই সত্তার শপথ, যার হাতে আমার প্রাণ! আমি যে যন্ত্রণা অনুভব করছি, সেই কষ্ট-যন্ত্রণা যদি জিল-মাজাজের অধিবাসীরা অনুভব করত, তাহলে তারা সবাই মারা যেত। (মুখতাসার সিরাতুর রাসুল, পৃষ্ঠা ২৫০)

অন্যত্র আছে, সে বারবার বলছিল, মুহাম্মদ মক্কায় বলছিলেন, আমিই তোমাকে হত্যা করব। তিনি যদি আমাকে থুথুও নিক্ষেপ করতেন, তবু আমার প্রাণ বেরিয়ে যেত। (আর-রাহিকুল মাখতুম, পৃষ্ঠা ১৪৭)

অবশেষে আল্লাহ ও তাঁর রাসুলের শত্রু উবাই ইবনে খালাফ মক্কায় ফেরার পথে সারিফ নামক স্থানে মারা যায়।

 



সাতদিনের সেরা