kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

প্রশ্ন-উত্তর

১০ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ঈদের খুতবা চলাকালে ইমামের সঙ্গে তাকবির ও দরুদ বলা

প্রশ্ন : ইমাম সাহেব ঈদের খুতবা প্রদানকালে তাকবিরে তাশরিক বা দরুদ পাঠ করলে তাঁর সঙ্গে মুসল্লিদের তা পড়ার বিধান কী?

লায়েকুজ্জামান, ময়মনসিংহ

উত্তর : ইমাম সাহেব ঈদের খুতবা দেওয়া অবস্থায় তাকবিরে তাশরিক বা দরুদ পাঠ করলে মুসল্লিরা তাঁর সঙ্গে মনে মনে পড়তে পারবে। মুখে উচ্চারণ করে পড়া নিষেধ। (বাদায়েউস সানায়ে : ১/২৬৪-২৬৫, ফাতহুল কাদির : ২/৩৮, আদ্দুররুল মুখতার : ২/১৫৯, রদ্দুল মুহতার : ২/১৫৯)

 

ঈদের খুতবা চলাকালে চাঁদা তোলা

প্রশ্ন : ঈদের নামাজের সালাম ফেরানোর পর খুতবা চলাকালে কাতারের মাঝে মাঝে চাঁদা তোলার বিধান কী?

হেদায়েত উল্লাহ, চট্টগ্রাম

উত্তর : খুতবা শ্রবণ করা ওয়াজিব। খুতবা চলাকালে কোনো ধরনের চাঁদা তোলা ইসলামের দৃষ্টিতে জায়েজ নেই। (বাদায়েউস সানায়ে : ১/২৭৬, আদ্দুররুল মুখতার : ২/১৫৯)

 

সুন্নতের দ্বিতীয় রাকাতে জামাত শুরু হলে করণীয়

প্রশ্ন : জোহরের সুন্নত নামাজের এক রাকাত অথবা দুই রাকাত হয়েছে, এমতাবস্থায় জামাত দাঁড়িয়ে গেছে। এ ক্ষেত্রে করণীয় কী?

মাহতাব চৌধুরি, রংপুর

উত্তর : সুন্নত নামাজ এক-দুই রাকাত পড়া অবস্থায় জামাত দাঁড়িয়ে গেলে দুই রাকাত শেষ করে সালাম ফিরিয়ে জামাতে শরিক হয়ে যাবে। (মারাকিল ফালাহ, পৃষ্ঠা : ১৭৫, হিন্দিয়া : ১/১২০)

 

রক্ত ঝরতে না দিয়ে মুছে ফেলা

প্রশ্ন : কোনো ব্যক্তি চুলকানির কারণে বা ব্রণ গলিয়ে দেওয়ার কারণে বারবার রক্ত ঝরছে আর সে মুছে ফেলছে। এখন তার অজু ভাঙবে কি?

মুরাদ আলী, ঢাকা

উত্তর : প্রশ্নে বর্ণিত ব্যক্তি চুলকানি বা ব্রণ গলিয়ে দেওয়ার কারণে একই মজলিসের মধ্যে বারবার যতটুকু রক্ত বের হয়েছে সব রক্ত একত্র করা হলে যদি প্রবাহিত হওয়ার পরিমাণ হয়, তাহলে ওই ব্যক্তির অজু ভেঙে যাবে, অন্যথায় ভাঙবে না। (রদ্দুল মুহতার : ১/১৩৫, হিন্দিয়া : ১/১১, মাহমুদিয়া : ২/৩২, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৩/৫৯)

 

বাবার অসিয়ত লঙ্ঘন করে কোনো মেয়েকে বিয়ে করা

প্রশ্ন : জনৈক ব্যক্তির বাবার অসিয়ত ছিল ‘খবরদার! তুই অমুক মেয়েকে বিয়ে করিস না, ওকে বিয়ে করলে আমি রাজি নেই।’ এই অসিয়তের কিছুদিন পর বাবা মারা যান। প্রশ্ন হলো, এ জন্য ওই মেয়েকে বিয়ে করতে ইসলামের কোনো বিধি-নিষেধ আছে?

শরীফ, এখলাসপুর, নোয়াখালী

উত্তর : বিয়েশাদি মা-বাবার সম্মতি ও সন্তুষ্টি মোতাবেক করা ছেলের নৈতিক ও দ্বিনি দায়িত্ব। মা-বাবার অসম্মতির কারণ যদি কোনো দ্বিনি বিষয় নিয়ে হয়, তাহলে তাঁদের অসিয়ত অমান্য করে বিয়ে করলে তা শুদ্ধ হলেও ছেলে গুনাহগার হবে। (এমদাদুল মুফতিন, পৃ: ৪৪০, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৬/৬২)

 

সমাধান : ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বাংলাদেশ, বসুন্ধরা, ঢাকা

 



সাতদিনের সেরা