kalerkantho

রবিবার । ৬ আষাঢ় ১৪২৮। ২০ জুন ২০২১। ৮ জিলকদ ১৪৪২

কোরআনের বাণী

সুরা : হা-মিম সাজদা, চতুর্থ পর্ব

৯ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



শয়তানের কুমন্ত্রণা থেকে আল্লাহর কাছে আশ্রয় নাও

ইরশাদ হয়েছে, ‘যদি শয়তানের কুমন্ত্রণা তোমাকে প্ররোচিত করে, তবে আল্লাহর শরণ নেবে। তিনি সর্বশ্রোতা, সর্বজ্ঞ।’ (আয়াত : ৩৬)

 

ফেরেশতারা ক্লান্তিহীনভাবে ইবাদত করে

ইরশাদ হয়েছে, ‘তারা (কাফিররা) অহংকার করলেও যারা তোমার প্রতিপালকের সান্নিধ্যে আছে, তারা দিন-রাত তাঁর পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করে এবং তারা ক্লান্তি বোধ করে না।’ (আয়াত : ৩৮)

 

কোরআন বিকৃতকারীদের জন্য জাহান্নাম

ইরশাদ হয়েছে, ‘যারা আমার আয়াতগুলো বিকৃত করে, তারা আমার অগোচরে নয়। শ্রেষ্ঠ কে—যে জাহান্নামে নিক্ষিপ্ত হবে সে, নাকি যে কিয়ামতের দিন নিরাপদ থাকবে সে? তোমাদের যা ইচ্ছা করো। তোমরা যা করো তিনি তার সম্যক দ্রষ্টা।’ (আয়াত : ৪০)

 

কোরআন প্রত্যাখ্যানের শাস্তি অত্যন্ত কঠোর

ইরশাদ হয়েছে, ‘যারা তাদের কাছে কোরআন আসার পর তা প্রত্যাখ্যান করে, তাদের কঠিন শাস্তি দেওয়া হবে। এটি নিশ্চয়ই একটি মহিমাময় গ্রন্থ।’ (আয়াত : ৪১)

 

কোরআনে মিথ্যার কোনো অবকাশ নেই

ইরশাদ হয়েছে, ‘কোনো মিথ্যা এতে অনুপ্রবেশ করতে পারে না—আগ থেকেও না, পিছু থেকেও না। এটি প্রজ্ঞাময়, প্রশংসার্হ আল্লাহর কাছ থেকে অবতীর্ণ।’ (আয়াত : ৪২)