kalerkantho

সোমবার । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৭ মে ২০২১। ০৪ শাওয়াল ১৪৪

করোনাকালে যেভাবে কাটছে ফরাসি মুসলিমদের রমজান

আবরার আবদুল্লাহ   

৪ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনাকালে যেভাবে কাটছে ফরাসি মুসলিমদের রমজান

প্যারিসের অধিবাসী লালা আয়েশা মুজাহিদ দ্বিতীয়বারের মতো করোনা পরিস্থিতির মধ্যে রমজান উদযাপন করছেন। মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে ইফতার করার পরিবর্তে ইফতারের সময় তার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলতে হচ্ছে তাঁকে। পরিবার বিচ্ছিন্ন ও ঘরবন্দি এই রমজানের অভিজ্ঞতা যে মোটেই সুখকর নয়, তা আয়েশার কথা থেকেই বোঝা যায়। তিনি বলেন, ‘আমরা কিসের শূন্যতা অনুভব করছি? আমরা মূলত মসজিদ, একসঙ্গে নামাজ আদায় ও ইফতার করার মুহূর্তগুলোর শূন্যতা অনুভব করছি। দুই সময়ের অনুভূতি কখনো এক নয়।’

পারিবারিক আয়োজনের দিক থেকে আয়েশা ও তাঁর পরিবারের জন্য হয়তো এবারের রমজান খুব বেশি ভিন্ন নয়। কেননা তাঁরা প্রতিবারের মতো সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত রোজা পালন করছেন, পরিবারের সবাই মিলে ইফতার করছেন এবং ইবাদত-প্রার্থনায় সময় কাটাচ্ছেন। তবে সামাজিক সম্প্রীতি ও মেলবন্ধনের যে মহান শিক্ষা রমজান নিয়ে আসে, সে বিবেচনায় এবারের রমজান অনেক বেশি ভিন্ন। করোনা মহামারির কারণে ফ্রান্সে সন্ধ্যা ৭টা থেকে কারফিউ শুরু হয়। তাই মুসল্লিরা রাতে মসজিদে গিয়ে নামাজ আদায় করতে পারে না। আয়েশার পরিবারও মসজিদে না গিয়ে প্যারিসের শহরতলির বাড়িতে অবস্থান করে। তারা লিভিং রুমের চেয়ার-টেবিল সরিয়ে সেখানে জায়নামাজ বিছিয়ে নামাজ আদায় করে। তাদের ইফতার আয়োজন হচ্ছে পরিবারের সদস্য ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের সঙ্গে। স্বাভাবিক সময়ে তাঁর মেয়েরা তাদের সঙ্গে ইফতার করে। কিন্তু করোনার কারণে তারা নিজ নিজ বাড়িতে ইফতার করছে।

আয়েশার স্বামী আজিজুল মুজাহিদ একজন ব্যবসায়ী। তিনিও মেয়েদের অনুপস্থিতি ও শূন্যতা অনুভব করছেন। তিনি বলেন, ‘যখন কভিড ছিল না, তখন পরিবারের সবাই মিলে ইফতার করতাম। কিন্তু কভিডের কারণে আমাদের সদস্যসংখ্যা কমে গেছে।’ মুজাহিদের প্রার্থনা, আল্লাহ বিশ্বকে কভিড থেকে রক্ষা করুন। তিনি বলেন, ‘আল্লাহ আমাদের প্রতি অনুগ্রহ করুন। তিনি আমাদের রোজা, ইবাদত ও প্রার্থনা কবুল করুন এবং তিনি কভিড দূর করে দিন।’ আরব নিউজ অবলম্বনে