kalerkantho

সোমবার । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৭ মে ২০২১। ০৪ শাওয়াল ১৪৪

প্রশ্ন-উত্তর

২০ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সুতরা দেওয়ার পদ্ধতি

প্রশ্ন : একা অথবা জামাতে নামাজ পড়তে সুতরা দেওয়ার পদ্ধতি কী? যদি কেউ দুই পাশে দুই খুঁটি গেড়ে দিয়ে খুঁটিদ্বয়ের ওপরে একটি লম্বা লাঠি বা বাঁশ টানিয়ে দেয় তাহলে সুতরা আদায় হবে কি?

মহসিন, গাইবান্ধা

উত্তর : একা অথবা জামাতে নামাজ পড়লে সুতরা দেওয়ার পদ্ধতি হলো, কমপক্ষে এক হাত লম্বা ও এক আঙুল পরিমাণ মোটা কোনো জিনিস নামাজির সামনে অথবা জামাতে নামাজ আদায় অবস্থায় ইমামের সামনে স্থাপন করবে। অতএব প্রশ্নে বর্ণিত উভয় পাশের খুঁটির ওপর লম্বা লাঠি বা বাঁশ টানিয়ে দেওয়ার দ্বারা সুতরার সুন্নত আদায় হয়ে যাবে। (তাবয়িনুল হাকায়েক : ১/১৬০, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৫/১০৪)

 

ইনহেলার ব্যবহারে রোজা নষ্ট হয়ে যায়

প্রশ্ন : জনৈক শ্বাসকষ্ট রোগী বিগত বছর পুরো রমজান মাস ইনহেলার ব্যবহার করেছেন। তা শুনে এক মুফতি সাহেব ফতোয়া দিয়েছেন যে ইনহেলার ব্যবহার করলে রোজা ভঙ্গ হয়ে যায়। জানার বিষয় হলো, ইনহেলার ব্যবহার করলে কি রোজা ভেঙে যায়? তাহলে এ অবস্থায় ওই রোজাদারের করণীয় কী?

হেদায়েতুল্লাহ, ডেমরা

উত্তর : ইনহেলার ব্যবহারে রোজা ভেঙে যায়। প্রশ্নে বর্ণিত ব্যক্তির ওপর ওই রোগ থেকে আরোগ্য হওয়ার পর ছুটে যাওয়া রোজাগুলোর শুধু কাজা করা ওয়াজিব। তবে শ্বাসকষ্ট রোগ থেকে শেফা পাওয়া থেকে নিরাশ হলে প্রতিটি রোজার জন্য ফিদিয়া আদায় করা জরুরি।

উল্লেখ্য, ফিদিয়া আদায় করার পরও যদি কখনো সুস্থ হয়ে যায়, পুনরায় কাজা করতে হবে, ওই ফিদিয়া যথেষ্ট হবে না। আর মৃত্যুর পূর্বে ফিদিয়া আদায় করা না হলে অসিয়ত করা জরুরি। (আদ্দুররুল মুখতার : ২/৩৯৫, ২/৪২৩, রদ্দুল মুহতার : ২/৩৯৫, ২/৪২৭, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৫/৪৪৫)

 

শরীর থেকে রক্ত বের করলে রোজা ভাঙে না

প্রশ্ন : রোজা অবস্থায় শরীর থেকে রক্ত বের করলে রোজা ভঙ্গ হবে কি?

আহসান হাবিব, সিলেট

উত্তর : রোজা অবস্থায় শরীর থেকে রক্ত বের করলে রোজা নষ্ট হয় না। তবে রক্ত বের করার দ্বারা দুর্বল হয়ে রোজা রাখার শক্তি হারিয়ে ফেলার আশঙ্কা হলে রক্ত বের করা মাকরুহ বলে বিবেচিত হবে। (আল বিনায়াহ : ৩/৬৪২, আহসানুল ফাতাওয়া : ৪/৪৩৫, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৫/৪৪৮)

 

রোজার ফিদিয়া দেওয়ার পর সুস্থ হয়ে গেলে

প্রশ্ন : একজন নারী অনেক বছর পর্যন্ত কঠিন রোগের কারণে রোজা রাখতে পারেননি। কিন্তু তিনি ফিদিয়া দিয়েছিলেন। এখন আল্লাহর রহমতে তিনি সুস্থ। তাঁকে কি ফিদিয়া দেওয়া রোজাগুলো আবার রাখতে হবে?

মাইন উদ্দিন, রাজশাহী

উত্তর : প্রশ্নে বর্ণিত নারী সুস্থ হয়ে যাওয়ায় তাঁকে অতীতের ফিদিয়া দেওয়া রোজাগুলোর কাজা করা শুরু করতে হবে। যদি তিনি সবগুলো রোজা কাজা করার আগে মারা যান, তাহলে অবশিষ্ট রোজাগুলোর ফিদিয়া আবার দিতে হবে। (হেদায়া : ১/১২০, হিন্দিয়া : ১/২০৭, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৫/৪৫৯)

 

সমাধান : ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বাংলাদেশ, বসুন্ধরা, ঢাকা