kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১২ রজব ১৪৪২

প্রশ্ন-উত্তর

২০ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ভাড়ার উদ্দেশ্যে ভবন করলে জাকাত আসে?

প্রশ্ন : আমার চাচা পেনশনের টাকা পেয়ে পাকা মার্কেট ও বাড়ি বানিয়ে ভাড়ার ব্যবসা করেন? প্রশ্ন হলো, ভাড়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি বা মার্কেট বানালে তার ওপর জাকাত আসবে?

—গোলাম খালেক, ঢাকা।

উত্তর : পাকা মার্কেট ও বাড়ি বানিয়ে ভাড়ার ব্যবসা করা বৈধ। এ পাকা বাড়ি ও মার্কেটের মূল্যের ওপর জাকাত আসবে না। তবে এগুলো থেকে অর্জিত অর্থ (ভাড়া) যদি নিসাব পরিমাণ হয়, তাহলে বছরান্তে জাকাত আসবে। (বাদায়েউস সানায়ে : ২/১৬, আফকে মাসায়েল আওর উনকা হল : ৬/১১৪, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৫২৭)

 

মানুষের নামে কসম করা যায়?

প্রশ্ন : আমি যদি কোনো কাজ না করার ব্যাপারে আমার কোনো নিকট-আত্মীয়ের নামে কসম করি, পরবর্তী সময়ে যদি সেই কসম না রাখতে পারি, তাহলে কি আমাকে কাফফারা দিতে হবে?

—আব্দুর রাজ্জাক, সিলেট।

উত্তর : ইসলামী শরিয়তের দৃষ্টিতে আল্লাহ তাআলার নাম ছাড়া অন্য কারো নামে কসম করলে তা কসম হিসেবে গণ্য হয় না। তাই আপনার নিকট-আত্মীয়ের নামে কৃত কসমটি শুদ্ধ হয়নি, তাই তা ভঙ্গের প্রশ্নই আসে না। তবে এ ধরনের কসমের জন্য তাওবা করতে হবে। (রদ্দুল মুহতার : ৩/৭০৫, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৭/৩৫৬)

 

একই রাকাতে একাধিকবার সুরা ফাতেহা পড়ে ফেললে

প্রশ্ন : একই রাকাতে একাধিকবার সুরা ফাতেহা পড়ে ফেললে কি সাহু সিজদা করতে হবে?

—আতিকুর রহমান, মিরপুর।

উত্তর : ফরজ নামাজের প্রথম দুই রাকাতের কোনো এক রাকাতে এবং সুন্নত ও ওয়াজিব নামাজের যেকোনো রাকাতে পূর্ণ ফাতেহা বা তিন আয়াত পরিমাণ দোহরানো হলে সাহু সিজদা ওয়াজিব হয়। তাই আপনার ওপর সাহু সিজদা ওয়াজিব হয়েছে। (হাশিয়াতু তহত্বভি, পৃ : ৪৬০, হিন্দিয়া : ১/১২৬, রদ্দুল মুহতার : ১/৪৬০, ফাতাওয়ায়ে দারুল উলুম : ৪/৩৯৬, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ৪/১৭৫)

 

ওয়াক্ত হওয়ার পর আজান না হলেও নামাজ পড়া

প্রশ্ন : আমাদের অফিস শেষ হতে হতে এশার নামাজের ওয়াক্ত হয়ে যায়। কিন্তু তখনো কোথাও এশার আজান হয় না। মাগরিবের অজু দিয়ে তখন নামাজ আদায় করে ফেলা অনেক সহজ হয়। অফিস থেকে বের হয়ে বাসায় গিয়ে অনেক সময় নামাজ পড়া হয় না। প্রশ্ন হলো, নামাজের ওয়াক্ত হওয়ার পর আজান না হলে কি নামাজ আদায় করা যাবে?

—সাবাব চৌধুরী, চট্টগ্রাম।

উত্তর : নামাজের ওয়াক্ত হওয়ার পর আজান না হলেও নামাজ আদায় শুদ্ধ হবে। তবে জামাতের জন্য আজান দেওয়া সুন্নতে মুআক্কাদাহ। মসজিদ ছাড়া অন্য জায়গায় জামাতের ক্ষেত্রে স্বীয় এলাকার মসজিদের আজান তাদের জন্য যথেষ্ট। (রদ্দুল মুহতার : ১/৪০৯, কানজুদ্দাকায়েক, পৃ. ১৯).

 

স্বামী আমার হাতের রান্না না খেলে কী করব?

প্রশ্ন : আমার স্বামী গত ছয় মাস আমার হাতের রান্না খায় না। সব সময় রাগ করে। এখন আমার করণীয় কী? আমি কি এই সংসার ছেড়ে চলে যাব? উল্লেখ্য আমার চার ছেলে এক মেয়ে।

—মাহমুদা, নরসিংদী।

উত্তর : আপনি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পর গুরুত্বের সঙ্গে আল্লাহ তাআলার দরবারে মুনাজাতের মধ্যে স্বামীর রাগ কমার জন্য দোয়া করুন। নিজেকে ও সন্তানদের আল্লাহর বিধান অনুযায়ী পরিচালনা করার চেষ্টা করুন। ভালোবাসার মাধ্যমে স্বামীর মন জয় করার চেষ্টা করতে থাকুন। ধৈর্য ধরুন, শান্ত থাকুন। দুঃখের পরই সুখ আসে। হুট করে সংসার ছেড়ে চলে যাওয়া কোনো সমাধান নয়। কারো মাধ্যমে নিকটস্থ কোনো ন্যায়নিষ্ঠ ও সুদক্ষ আলেমের সঙ্গে (পারিবারিক অসুবিধাগুলো বিস্তারিত জানিয়ে) পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন। নিজের ও ছেলে-মেয়ের ভবিষ্যতের কথাও বিবেচনায় রাখুন। আল্লাহ আপনার সমস্যাগুলো সমাধান করে দেবেন ইনশাআল্লাহ। (আবু দাউদ, হাদিস : ২২২৬, তিরমিজি, হাদিস : ১১৮৬)

 

সমাধান : ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার বাংলাদেশ, বসুন্ধরা, ঢাকা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা