kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

নবীর জীবনী বিষয়ে আল আজহারের আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা

বেলায়েত হুসাইন   

৩০ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নবীর জীবনী বিষয়ে আল আজহারের আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতা

বিশ্বনবী মুহাম্মদ (সা.)-এর জীবনচরিত পরিচায়ক বিষয়ক বহুভাষার বৃহৎ একটি অনুষ্ঠান আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছে মিসরের আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান আল আজহার ফাউন্ডেশন। গত বুধবার কায়রোতে ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে দেশটির ধর্ম মন্ত্রণালয় আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে আল আজহারের প্রধান শায়খ ড. আহমাদ আত-তায়্যিব এই ঘোষণা দেন। রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ফ্রান্সে মহানবী (সা.)-কে নিয়ে নানা ধৃষ্টতা প্রদর্শন এবং বিশ্বব্যাপী চলমান আন্দোলন ও প্রতিবাদের মধ্যেই ইতিবাচক এই সিদ্ধান্তের কথা জানাল বিশ্ববিদ্যালয়টি। অনুষ্ঠানের বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরে শায়খ আহমাদ আত-তায়্যিব আরো বলেন, রহমতের নবী ও মানবতার নবী মুহাম্মদ (সা.)-এর জীবনচরিত তুলে ধরে খুব শিগগির আল আজহার বহুভাষার একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে যাচ্ছে। এরই মধ্যে এর অংশ হিসেবে সৌহার্দ, কল্যাণ ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় রাসুলের পবিত্র চরিত্র নিয়ে একটি আন্তর্জাতিক জ্ঞান প্রতিযোগিতার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, বর্তমান সময়ের মতো রাসুল (সা.) তাঁর জীবদ্দশায় এবং তাঁর ওফাতের পরে মুসলিম উম্মাহ এ রকম সংকট মোকাবেলা করেছে। কিন্তু একসময় রাসুল এবং পরবর্তীরা দোষীদের সঙ্গে ক্ষমা ও অনুগ্রহের আচরণ করেছেন, রাসুল মূর্খদের হিদায়াতের জন্য দোয়া করেছেন এবং বলেছেন, ‘হে আল্লাহ! আপনি আমার উম্মতকে হিদায়াত দান করুন। কেননা তারা বোঝে না।’ কোরআনের আয়াত উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, ‘তাদের উত্তমভাবে ক্ষমা করুন।’ (সুরা : হিজর, আয়াত : ৮৫)

আরো তিলাওয়াত করেন, ‘তাদের আপনি ক্ষমা করুন, মার্জনা করুন—নিশ্চয়ই আল্লাহ অনুগ্রহকারীদের ভালোবাসেন।’ (সুরা : মায়িদা, আয়াত : ১৩)। মহান আল্লাহও যে তাঁর নবীর প্রতি বিষোদগারদের প্রতিহত করবেন—এ কথা বলে শায়খ আহমাদ আত-তায়্যিব সুরা হিজরের ৯৫ নম্বর আয়াতের মাধ্যমে প্রমাণ পেশ করেন। আল্লাহ বলেন, ‘নিশ্চয়ই বিদ্রুপকারীদের জন্য আমি আপনার পক্ষ থেকে যথেষ্ট।’ 

সূত্র : আল আহরাম ও ডেইলি সাবাহ

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা