kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ কার্তিক ১৪২৭। ২২ অক্টোবর ২০২০। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

নামাজের ভেতর ৬ ফরজ

মাওলানা সাখাওয়াত উল্লাহ   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নামাজের ভেতর ৬ ফরজ

পরিপূর্ণ ও প্রাণবন্ত নামাজে অসংখ্য বিধি-বিধান আছে। সেগুলোর কোনোটি ফরজ, কোনোটি ওয়াজিব, কোনোটি সুন্নত এবং কোনোটি মুস্তাহাব। এখানে নামাজের ভেতরের ফরজ কাজগুলো আলোচনা করা হলো—

১.   তাকবিরে তাহরিমা, অর্থাৎ শুরুতে আল্লাহু আকবার বলা।

     (সুরা : মুদ্দাসসির, আয়াত : ৩; বুখারি, হাদিস : ৮৩৩; মুসলিম, হাদিস : ৪১১, ৪১২)

২.   ফরজ ও ওয়াজিব নামাজ দাঁড়িয়ে পড়া। (সুরা : বাকারা, আয়াত : ২৩৮; বুখারি, হাদিস : ১১১৭)

৩.   কিরাত পড়া (অর্থাৎ কোরআন শরিফ থেকে ন্যূনতম ছোট এক আয়াত পরিমাণ পড়া ফরজ।) (সুরা : মুজ্জাম্মিল, আয়াত ২০; বুখারি, হাদিস : ৬২৫১; তিরমিজি, ৬৭, হাদিস : ৩০২, ৩০৩)

৪.   রুকু করা। (সুরা : হজ, আয়াত ৭৭; বুখারি, হাদিস : ১১১৩, ১১১৪; মুসলিম, হাদিস : ৪১২)

৫.   দুই সিজদা করা। (সুরা : হজ, আয়াত ৭৭; বুখারি, হাদিস : ৭৩৩; মুসলিম, হাদিস : ৪১১)

৬.   শেষ বৈঠক (নামাজের শেষে তাশাহহুদ পরিমাণ বসা) (আবু দাউদ, হাদিস : ৯৭০)

বি. দ্র. : নামাজি ব্যক্তির নিজস্ব কোনো কাজের মাধ্যমে (যেমন—সালাম ফেরানো ইত্যাদি) নামাজ থেকে বের হওয়াও একটা ফরজভুক্ত। (আল বাহরুর রায়িক, ১ : ৫১৩)। নামাজের কোনো ফরজ বাদ পড়লে নামাজ বাতিল হয়ে যায়। সাহু সিজদা করলেও নামাজ সহিহ হয় না। (আল বাহরুর রায়িক, ১/৫০৫; ফাতাওয়া শামি, ১/৪৪৭; হিদায়া : ১/৯৮)

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা