kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ কার্তিক ১৪২৭। ২২ অক্টোবর ২০২০। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

দাজ্জালকে যেখানে হত্যা করা হবে

মাওলানা সাখাওয়াত উল্লাহ   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দাজ্জালকে যেখানে হত্যা করা হবে

আসমানি ধর্মগুলোর অনুসারীরা বিশ্বাস করে যে কিয়ামতের আগে পৃথিবীতে দাজ্জালের আবির্ভাব ঘটবে। দাজ্জাল খুবই ক্ষমতাবান হবে। দাজ্জাল যখন কোনো জাতি-গোষ্ঠী অথবা এলাকার পাশ দিয়ে যাবে, তখন আসমানকে বৃষ্টি বন্ধ করে দিতে বলবে। আসমান বৃষ্টি বন্ধ করে দেবে। জমিনকে শস্য-ফলাদি উৎপাদন স্থগিত করে রাখতে বলবে। জমিন শস্য উৎপাদন স্থগিত রাখবে। মানুষের পালিত জন্তুগুলো ক্ষুধার তাড়নায় অস্থির হয়ে দিগ্বিদিক ছোটাছুটি করবে। যন্ত্রণা ও কষ্টে মরে যাওয়ার উপক্রম হবে। ছোট বাচ্চারা অভুক্ত থেকে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করবে। আর দাজ্জাল এ সব কিছু করবে তার সঙ্গে রুটির পাহাড় ও শীতল পানির নদী রেখে। আবার জমিনকে আদেশ দেবে, ‘তোমার গুপ্তধন বের করে দাও।’ দাজ্জালের এসব ধোঁকাবাজি দেখে বহু নারী তাকে বিশ্বাস করবে। হাদিসে এসেছে, পুরুষরা দাজ্জালের ভয়ে বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রী, মেয়ে, বোন ও নিকটাত্মীয়দের খুব শক্তভাবে রশি দিয়ে বেঁধে রাখবে, যেন তারা দাজ্জালের পেছনে না ছোটে।

দাজ্জাল পৃথিবীর প্রতিটি নগর-প্রান্তর চষে বেড়াবে। তাকে একটি গাধা বহন করে চলবে। আশ্চর্যজনক গাধাটির প্রতিটি কদমের দূরত্ব হবে ৪০ গজ। একেক কদমে ৪০ গজ এগিয়ে যাবে। কেউ কেউ বলেছেন, গাধাটির প্রতিটি কদম গিয়ে পড়বে দৃষ্টিসীমার শেষ প্রান্তে। ফলে পৃথিবীর সময়, জায়গা ও সবখানে দাপিয়ে বেড়ানো দাজ্জালের জন্য মামুলি ব্যাপারে পরিণত হবে। রাসুল (সা.) ইরশাদ করেছেন, ‘পৃথিবীর যেকোনো শহর ও স্থান দাজ্জাল পদদলিত করবে। তবে মক্কা ও মদিনা ছাড়া।’

সাহাবায়ে কিরাম রাসুল (সা.)-কে জিজ্ঞেস করেছেন, দাজ্জাল পৃথিবীতে কত দিন থাকবে হে আল্লাহর রাসুল! রাসুল (সা.) বলেছেন, দাজ্জাল পৃথিবীতে ৪০ দিন অবস্থান করবে।

দাজ্জালের অবস্থানকৃত ৪০ দিন যদি স্বাভাবিক নিয়মের ৪০ দিন হতো, তাহলে তত অসুবিধা হতো না। তার প্রতিটি দিন কেমন হবে এ ব্যাপারে রাসুল (সা.) ইরশাদ করেন, তখন এক দিন হবে এক বছরের মতো...! অর্থাৎ সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত পর্যন্ত সময় হবে ৩৬০ দিন সমপরিমাণ।

সাহাবায়ে কিরাম রাসুল (সা.)-কে জিজ্ঞেস করলেন, তখন আমরা কিভাবে নামাজ পড়ব হে আল্লাহর রাসুল? রাসুল (সা.)-এর কথাটি খেয়াল করলে বিষয়টি আমাদের কাছে স্পষ্ট হয়ে যাবে। রাসুল (সা.) বলেছেন, এক দিন এক বছরের মতো। আরেক দিন এক মাসের মতো। আরেক দিন এক সপ্তাহের মতো। আর বাকি সব দিন তোমাদের দিনগুলোর মতো। (বুখারি ও মুসলিম)

পৃথিবীর সমাপ্তিলগ্নে এসে দাজ্জাল নিজেকে খোদা বলে দাবি করবে। পৃথিবীতে নানা অরাজকতা সৃষ্টি করবে, বিপর্যয় ছড়িয়ে দেবে। অবশেষে ঈসা (আ.) এসে দাজ্জালকে হত্যা করবেন এবং পৃথিবীবাসীকে ফিতনামুক্ত করবেন। রাসুল (সা.)-এর বিভিন্ন হাদিসে ঈসা (আ.) দাজ্জালকে কোথায় হত্যা করবেন তার বর্ণনা পাওয়া যায়। মুজাম্মা ইবনে জারিয়া আনসারি (রা.) বর্ণনা করেন, আমি আল্লাহর রাসুল (সা.)-কে বলতে শুনেছি,

ঈসা ইবনে মারিয়াম দাজ্জালকে বাবে লুদে হত্যা করবেন। (মুসনাদ আহমাদ, খণ্ড ৩, পৃষ্ঠা ৪২০; সুনানে তিরমিজি, হাদিস : ২২৪৪)

বিভিন্ন হাদিসের বর্ণনায় বাবে লুদ বা লুদের ফটক কথাটি এসেছে। লুদ বর্তমান ইসরায়েল অধিকৃত ঐতিহাসিক ফিলিস্তিন ভূখণ্ডের একটি ছোট শহর, যা তেল আবিব থেকে ১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্বে অবস্থিত। ইসরায়েলের প্রধান বিমানবন্দর বেন গুরিয়ান বিমানবন্দর এই শহরটির কাছেই অবস্থিত।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা