kalerkantho

সোমবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৩ সফর ১৪৪২

হাদিসের শিক্ষা

১০ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হাদিসের শিক্ষা

অজুর অঙ্গ যেন শুকনো না থাকে

আব্দুল্লাহ ইবনে আমর (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী (সা.) এক সফরে আমাদের পেছনে রয়ে গিয়েছিলেন, অতঃপর তিনি আমাদের নিকট পৌঁছে গেলেন। তখন আমরা আসরের সালাত শুরু করতে দেরি করে ফেলেছিলাম। তাই আমরা অজু করছিলাম এবং (তাড়াতাড়ির কারণে) আমাদের পা মাসেহ করার মতো হালকাভাবে ধুয়ে নিচ্ছিলাম। তখন তিনি উচ্চৈঃস্বরে বললেন, ‘পায়ের গোড়ালিগুলোর জন্য জাহান্নামের শাস্তি রয়েছে।’ দুইবার অথবা তিনবার তিনি এ কথার পুনরাবৃত্তি করলেন। (বুখারি, হাদিস : ১৬৩)

 

রাসুল (সা.) যেভাবে অজু করেছেন

ওসমান ইবনে আফফান (রা.)-এর মুক্ত করা দাস হুমরান (রহ.) থেকে বর্ণিত, তিনি ওসমান (রা.)-কে অজুর পানি আনাতে দেখলেন। অতঃপর তিনি সে পাত্র থেকে উভয় হাতের ওপর পানি ঢেলে তা তিনবার ধুলেন। তারপর তাঁর ডান হাত পানিতে ঢুকালেন। অতঃপর কুলি করলেন এবং নাকে পানি দিয়ে নাক ঝাড়লেন। তারপর তাঁর মুখমণ্ডল তিনবার এবং উভয় হাত কনুই পর্যন্ত তিনবার ধুলেন, অতঃপর মাথা মাসেহ করলেন। তারপর উভয় পা তিনবার ধোয়ার পর বললেন, আমি নবী (সা.)-কে আমার এ অজুর মতো অজু করতে দেখেছি এবং আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি আমার এ অজুর মতো অজু করে দুই রাকাত সালাত আদায় করবে এবং তার মধ্যে অন্য কোনো চিন্তা মনে আনবে না, আল্লাহ তাআলা তার পূর্বকৃত সব গুনাহ ক্ষমা করে দেবেন।’ (বুখারি, হাদিস : ১৬৪)

 

কারো পাত্রে কুকুর মুখ দিলে করণীয়

আবূু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, আল্লাহর রাসুল (সা.) বলেছেন, তোমাদের কারো পাত্রে যদি কুকুর পান করে তা যেন সাতবার ধুয়ে নেয়। (বুখারি, হাদিস : ১৭২)

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা