kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৪ আগস্ট ২০২০ । ২৩ জিলহজ ১৪৪১

পরিভাষাগুলো পাল্টানো দরকার

মো. আলী এরশাদ হোসেন আজাদ   

১০ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমরা অনেকেই না জেনে, না বুঝে এমন কথা বলি, যা রীতিমতো বিভ্রান্তিকর। মুসলমান হিসেবে এসব কথা বা পরিভাষা ব্যবহারের সুযোগ নেই। যেমন—

খাঁটি মুসলমান : আমরা বলি ‘খাঁটি মুসলমান’। মুসলমান মাত্রই বিশ্বাসগতভাবে ‘খাঁটি’। মুসলিম, মুমিন, মুত্তাকি ইত্যাদি শব্দের মাধ্যমে যেখানে ব্যক্তির গুণগত মর্যাদা বোঝানো হয়, সেখানে ‘খাঁটি মুসলমান’ বলার প্রয়োজন হয় না। মুমিনের গুণাবলি হলো, সাদিক, সিদ্দিক, জাকির, সালেহ, সায়িম ইত্যাদি। তবে সাধারণ মুসলমানদের থেকে নেককার মুসলমানদের মধ্যে পার্থক্য করার জন্য ‘খাঁটি মুসলমান’ কথাটার প্রচলন ঘটে।

আলহাজ : ইবাদত লোক দেখানোর বিষয় নয়। নামাজ আদায়কারী নিজেকে নামাজি বা মুসল্লি নামে প্রচার করে না। একইভাবে রোজাদার নিজেকে ‘সায়িম’ নামে আত্মপ্রচার করে না। হজ একটি মৌলিক ইবাদত। এটি পদবি বা উপাধি নয়। তাই আলাদাভাবে আলহাজ উপাধির ব্যবহার অনুচিত।

মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়া : ‘অমুক মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে’ বা ‘তার অকালমৃত্যু হয়েছে’—এমন কথা হরহামেশা শোনা যায়! আসলেই কি একজন মুসলমান মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়তে সক্ষম?

ইসলামী বিশ্বাস অনুযায়ী, মানুষ নির্ধারিত কালেই মৃত্যুবরণ করে। মরণের অনুগামী সব প্রাণ ও প্রত্যেকেই। কোরআনের বিখ্যাত বাণী : ‘কুল্লুনাফসিন যায়িকাতুল মাউত—জীবমাত্র মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করবে...।’ (সুরা আলে ইমরান, আয়াত : ১৮৫)। মহাপ্রভুর মহাশক্তিময় আদেশ মৃত্যু। তাই তিনি বলেন, ‘তোমরা যেখানেই থাকো না কেন, মৃত্যু তোমাদের নাগাল পাবেই, এমনকি সুরক্ষিত-সুদৃঢ় দুর্গে অবস্থান করলেও...।’ (সুরা নিসা, আয়াত : ৭৮)

বিসমিল্লায় গলদ : আশ্চর্য, কোনো কাজের শুরুতে বিসমিল্লাহ বলা হয় বরকতের জন্য। অথচ কেউ কেউ এই বরকতপূর্ণ কথায় ‘গলদ’ ঢুকিয়ে দিয়েছে। তাই বিসমিল্লায় গলদ—এ কথা বলা যাবে না। বরং বলতে হবে—গোড়ায় গলদ।

প্রয়োগ দোষে বিতর্কিত : মাজার, ফতোয়া, জিহাদ ইত্যাদি প্রয়োগ দোষে বিতর্কিত পরিভাষা হয়ে গেছে। জঙ্গিবাদ বলতে প্রচলিত অর্থে যা বোঝায়, ইসলামের পরিভাষায় জিহাদ বলতে তা বোঝায় না। বহুল আলোচিত ‘ফতোয়াবাজি’ ও ইসলামী অনুশাসন ‘ফতোয়া’ এক নয়। লেখক, সাংবাদিক ও সাহিত্যিকদের এসব শব্দ ও পরিভাষা ব্যবহারে সতর্ক হওয়া উচিত।

লেখক : বিভাগীয় প্রধান, ইসলামিক স্টাডিজ, কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজ, গাজীপুর।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা