kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অনলাইনে কোরআনবিষয়ক আলোচনা-অনুষ্ঠান

মুহাম্মাদ হেদায়াতুল্লাহ   

১০ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অনলাইনে কোরআনবিষয়ক আলোচনা-অনুষ্ঠান

কভিড-১৯ মহামারির দরুন গত ১৭ মার্চ থেকে বন্ধ আছে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এরই ধারাবাহিকতায় শিক্ষাবর্ষ সমাপ্তির দ্বারপ্রান্তে থেকেও স্থগিত রাখা হয়েছে দেশের হাজার হাজার কওমি মাদরাসার শিক্ষাকার্যক্রম। পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও মসজিদে যাতায়াত সীমিত রাখার নির্দেশনা রয়েছে। এমন স্থবির সময়ে ইসলামী চিন্তাবিদরা ঘরে থেকেই রমজানের প্রতি মুহূর্তকে কাজে লাগানোর পরামর্শ দিয়েছেন। কোরআনচর্চা যার অন্যতম দিক। কোরআন অবতীর্ণের মাস রমজানে কোরআনের সঙ্গে গভীর সম্পর্ক তৈরির চিন্তা থেকে দেশের ব্যতিক্রমধর্মী ইসলামী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চট্টগ্রামের জামেয়া দারুল মাআরিফ আল-ইসলামিয়ার পৃষ্ঠপোষকতায় চলছে অনলাইনভিত্তিক কোরআনবিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র শিক্ষক ও মুহাদ্দিস মাওলানা আফিফ ফুরকান মাদানির সার্বিক তত্ত্বাবধানে প্রথম রমজান থেকে শুরু হয়েছে এই আয়োজন। তিনি জামেয়ার সাংস্কৃতিক ফোরাম ‘আন্নাদি আসসাকাফি আল ইসলামি’র মহাসচিবের দায়িত্বেও রয়েছেন। কোরআনবিষয়ক গবেষণার সঙ্গে শিক্ষার্থীদের পরিচিত করাই এই প্রগ্রামের মূল উদ্দেশ্য। এ ছাড়া আয়োজকরা কোরআন হিফজের পাশাপাশি কোরআনের বিষয়ভিত্তিক তাফসির এবং আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে ইসলামের প্রচার-প্রসারে আলেম সমাজ ও শিক্ষার্থীদের অভ্যস্ত করতে চান।

‘জুম’ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রতিদিন দুপুর ২টায় নির্ধারিত বিষয়ে দেড় ঘণ্টাব্যাপী আয়োজনে দেশ-বিদেশের খ্যাতিমান ইসলামী ব্যক্তিত্বরা আলোচনা প্রদান করেন। প্রতিষ্ঠানের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা তাতে অংশগ্রহণ করে থাকেন। আলোচনার পর থাকে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রশ্নোত্তর পর্ব। অংশগ্রহণকারীদের জন্য বিষয়ভিত্তিক কোরআনের আয়াত ও হাদিস মুখস্থকরণ ও শোনানোর বিশেষ পর্ব থাকে।

ইতিমধ্যে পবিত্র কোরআনে রোজাবিষয়ক আয়াত, কোরআনের অলৌকিকত্ব ও আধুনিক বিজ্ঞান, আরবি ভাষা ও সাহিত্যে পবিত্র কোরআনের প্রভাব, নৈতিকতা গঠন ও সুকুমারবৃত্তি লালনে কোরআনের নির্দেশনা, কোরআন, সুন্নাহ ও ফিকহের আলোকে সহজতা অবলম্বনের রূপরেখা ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা করেছেন আন্তর্জাতিক ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের অধ্যাপক ড. মুস্তফা কামিল মাদানি, রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তা বিশিষ্ট লেখক ও গবেষক ড. সাদেক হুসাইন, মক্কায় উম্মুল কুরা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ড. শুআইব রশিদ মক্কি, কাতার বিশ্ববিদ্যলয়ের ইবনে খালদুন গবেষণা সেন্টারের সহযোগী গবেষক মাওলানা হুসাইন মুহাম্মাদ নাঈমুল হক প্রমুখ।

বিংশ শতাব্দীর কিংবদন্তি ইসলামী চিন্তাবিদ আল্লামা সাইয়েদ আবুল হাসান আলি নদবি (রহ.)-এর নির্দেশনায় ১৯৮৫ সালে আল্লামা মুহাম্মাদ সুলতান যওক নদবি ঐতিহ্যবাহী এই প্রতিষ্ঠানের গোড়াপত্তন করেন।

বাংলাদেশের ইসলামী শিক্ষা বিস্তারে জামেয়া দারুল মাআরিফ আল-ইসলামিয়া ইতিমধ্যে ৩৫ বছর অতিক্রম করেছে।

চলতি বছরের ১৭-১৮ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক ইসলামী সম্মেলনে প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়। দেশ-বিদেশের আমন্ত্রিত খ্যাতিমান ইসলামী চিন্তাবিদদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা সমাপনকারীদের বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে।

লেখক : ইসলামী গবেষক



সাতদিনের সেরা