kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৩ আগস্ট ২০২০ । ২২ জিলহজ ১৪৪১

বঙ্গবন্ধু বললেন, ঈমানই মুসলমানদের সেরা হাতিয়ার

২৬ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করাচির কোরাঙ্গীতে মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ প্রধান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেন, স্বৈরাচার ও অবিচারের বিরুদ্ধে সংগ্রামের জন্য তিনি নিজেকে উত্সর্গ করেছেন এবং সাধারণ মানুষের বৈধ অধিকার প্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যন্ত তিনি ক্ষান্ত হবেন না।

৯ আগস্ট ১৯৬৯ পশ্চিম পাকিস্তানের কোরাঙ্গী উপশহরে একটি মসজিদের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে বক্তৃতায় নিখিল পাকিস্তান আওয়ামী লীগ সভাপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেন, পাকিস্তানের জন্য তাঁরা যে সংগ্রাম শুরু করেছিলেন, বর্তমান সংগ্রাম তারই ক্রমবিকাশ। মুসলমানদের জন্য পৃথক আবাসভূমি কায়েমের ২২ বছর পরও এই সংগ্রাম অব্যাহত রয়েছে।

শেখ সাহেব বলেন, পাকিস্তান এই দেশের ১২ কোটি জনসাধারণের জন্যই কায়েম হয়েছে, গুটিকয়েক লোকের জন্য নয়।

তিনি বলেন, বিরোধী দলে থাকার দরুন এক্ষণে তিনি শুধু এই ওয়াদাই করতে পারেন যে জনসাধারণের জন্যই তাঁর জীবন উত্সর্গীকৃত।

শেখ সাহেব বলেন, অবিচার ও স্বৈরাচারের সঙ্গে তিনি কখনো আপস করেননি এবং অতীতে এ জন্য নির্যাতন ভোগ করেছেন। তিনি বলেন, প্রয়োজন হলে ভবিষ্যতেও তিনি নির্যাতন ভোগের জন্য প্রস্তুত রয়েছেন।

তিনি বলেন, ঈমানই মুসলমানদের সেরা হাতিয়ার এবং মুসলমানদের একমাত্র আল্লাহকেই ভয় করা উচিত। এই খোদাভীরুতাই মুসলমানকে জীবনের বিভিন্ন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে সহায়তা করে।

আওয়ামী লীগ প্রধান বলেন, ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য তিনি বহুবার সুযোগ পেয়েছিলেন; কিন্তু সেসব সুযোগ তিনি প্রত্যাখ্যান করেছেন। কারণ, এসব ক্ষেত্রে নীতির সঙ্গে আপসের প্রশ্ন জড়িত ছিল।

শেখ সাহেব মসজিদ নির্মাণ তহবিলে তাঁর এবং তাঁর সহকর্মীদের তরফ থেকে ৫০১ টাকা দান করেন।

সূত্র : ইত্তেফাক, রবিবার, ২৬ শ্রাবণ ১৩৭৬, ১০ আগস্ট ১৯৬৯

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা