kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৩ জানুয়ারি ২০২০। ৯ মাঘ ১৪২৬। ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১          

প্রশ্ন-উত্তর

সমাধান : ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার, ঢাকা

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মা-বাবার ঝগড়ার সময় সন্তানের করণীয়

 

প্রশ্ন : মা-বাবা আমার সামনে যদি একজন অন্যজনের ওপর মারার জন্য উপস্থিত হন, তাহলে আমার করণীয় কী?

মো. মিশর পাঠান, মধ্য দিঘলদী, মতলব (দ.), চাঁদপুর।

উত্তর : এখানে সন্তান হিসেবে আপনার জন্য যা করণীয় তা হলো—

নম্রভাবে বাবাকে বুঝিয়ে এই ন্যক্কারজনক কাজ থেকে বিরত রাখার চেষ্টা করবেন। তাঁর সম্মানের প্রতি লক্ষ রেখে নম্রতা ও কৌশলে তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করবেন। প্রয়োজনে বাবার বিশ্বস্ত ও ঘনিষ্ঠ কারো সহযোগিতা নিতে পারেন। কোনো হক্কানি আলেমের সঙ্গে সম্পর্ক করে দেওয়ার চেষ্টা করতে পারেন।

হক্কানি উলামায়ে কেরামের বই-পুস্তক অধ্যয়নের ব্যবস্থা করে দিন। (সুরা : ইসরা, আয়াত : ২৩; ফাতাওয়ায়ে শামি : ৪/৭৮, ফাতাওয়ায়ে ফকীহুল মিল্লাত : ১২/১৩৪-১৩৬)

 

শিক্ষার্থীরা বিয়ে করতে পারবে?

প্রশ্ন : আমি ২১ বছর বয়সের একজন ছেলে। আমি নিজেকে গুনাহ থেকে হেফাজত করার জন্য বিয়ে করতে চাই। এখন আমি যদি বিয়ে করে অর্থাৎ আক্দ্ করে আমার জীবনসঙ্গিনীকে তাদের পরিবারের কাছে কয়েক বছরের জন্য রেখে দিই কোনো সমস্যা হবে কি? আমি বর্তমানে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে পড়াশোনা করছি। তাই আমি চাইছি পড়াশোনা শেষ করে আনুষ্ঠানিক কাজগুলো করব। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

উত্তর : ইসলামের দৃষ্টিতে বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার পর স্ত্রীর অন্ন, বস্ত্র ও বাসস্থানের ব্যবস্থা করা স্বামীর দায়িত্ব। তদুপরি শ্বশুরপক্ষ স্বেচ্ছায় তাদের মেয়েকে নিজেদের সঙ্গে রাখতে আগ্রহী হলে শরিয়তের দৃষ্টিতে তাতে কোনো অসুবিধা নেই। উল্লেখ্য, যেকোনো অনুষ্ঠান শরয়ি নীতিমালা মেনে করা একজন প্রকৃত মুমিনের ঈমানি দায়িত্ব। প্রচলিত সামাজিক কুসংস্কার সর্বাবস্থায় পরিহারযোগ্য। (ফাতাওয়ায়ে হিন্দিয়া : ১/৫৪৫, আদ্দুররুল মুখতার : ৩/৪৯৪, কেফায়েতুল মুফতি : ৯/৯৪)

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা