kalerkantho

বুধবার । ২২ জানুয়ারি ২০২০। ৮ মাঘ ১৪২৬। ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

মানবজাতির প্রতি কোরআনের অমূল্য উপদেশ

সুরা ইবরাহিম : দ্বিতীয় পর্ব

১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মানবজাতির প্রতি কোরআনের অমূল্য উপদেশ

পরকালে অনুসৃতরা অনুসারীদের ভুলে যাবে

 

ইরশাদ হয়েছে, ‘তারা সবাই আল্লাহর কাছে একত্র হবে। দুর্বলরা দাম্ভিকদের বলবে, আমরা তোমাদের অনুসরণ করতাম, তোমরা কি আমাদের আল্লাহর শাস্তি থেকে সামান্য রক্ষা করতে পারবে? তারা বলবে, আল্লাহ যদি আমাদের সুপথ দিতেন, তবে আমরাও তোমাদের সুপথে পরিচালিত করতে পারতাম। এখন আমরা ধৈর্যচ্যুত হই আর ধৈর্যশীল হই একই কথা; আমাদের কোনো নিষ্কৃতি নেই।’ (সুরা : ইবরাহিম, আয়াত : ২১)

 

শয়তানের আহ্বানে সাড়া দিয়ো না

ইরশাদ হয়েছে, ‘যখন বিচার শেষ হবে, তখন শয়তান বলবে, আল্লাহ তোমাদের সত্য অঙ্গীকার করেছিলেন। আমিও তোমাদের অঙ্গীকার করেছিলাম, কিন্তু আমি অঙ্গীকার ভঙ্গ করলাম। তোমাদের ওপর আমার কোনো কর্তৃত্ব ছিল না। আমি শুধু তোমাদের আহ্বান জানিয়েছি। তোমরা তাতে সাড়া দিয়েছ। সুতরাং তোমরা আমাকে দোষারোপ কোরো না। নিজেদের দোষারোপ করো। ...’

(সুরা : ইবরাহিম, আয়াত : ২১)

 

ভালো কথা সুফলা গাছের মতো

ইরশাদ হয়েছে, ‘তুমি কি লক্ষ করো না আল্লাহ কিভাবে উপমা দেন? ভালো কথা উৎকৃষ্ট গাছের মতো, যার শিকড় সুদৃঢ় আর শাখা-প্রশাখা ঊর্ধ্বে বিস্তৃত। সে তার প্রতিপালকের নির্দেশে প্রত্যেক মৌসুমে ফল প্রদান করে। আল্লাহ মানুষের সামনে উপমা পেশ করেন যেন তারা শিক্ষা গ্রহণ করে।’

(সুরা : ইবরাহিম, আয়াত : ২৪-২৫)

 

মন্দ কথা নিকৃষ্ট গাছের মতো

ইরশাদ হয়েছে, ‘আর মন্দ কথা নিকৃষ্ট গাছের মতো। যার শিকড় ভূমি থেকে বিচ্ছিন্ন এবং যার কোনো স্থায়িত্ব নেই।’

(সুরা : ইবরাহিম, আয়াত : ২৬)

 

অকৃতজ্ঞতা ধ্বংস ডেকে আনে

ইরশাদ হয়েছে, ‘তুমি কি দেখো না, যারা আল্লাহর অনুগ্রহের বদলে অকৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে এবং নিজ সম্প্রদায়কে ধ্বংসের পথে নামিয়ে আনে।’ (সুরা : ইবরাহিম, আয়াত : ২৮)

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা